Kaal Sarp Dosh or Kaal Sarp Yoga in Details

Kaal Sarp Dosh: ১৫১ বছর পর কাল সর্পদোষ কাটছে কার কার ?

জ্যোতিষ শাস্ত্র রাশিফল

পাশাপাশি পাঁচটি ঘর খালি থাকে তবে পূর্ণ কালসর্প যোগ (Kaal Sarp Dosh) সৃষ্টি হয়। যদি পরপর পাঁচটি ঘর খালি না থাকে সে ক্ষেত্রে কোন আংশিক কালসর্প যোগ …

কোন জন্ম কুণ্ডলীতে রাহু ও কেতু সহ যদি সমস্ত গ্রহ তথা রবি, চন্দ্র, মঙ্গল, বুধ, বৃহস্পতি, শুক্র এবং শনি একদিকে অবস্থান গ্রহণ করে এবং অন্যদিকে পাশাপাশি পাঁচটি ঘর খালি থাকে তবে পূর্ণ কালসর্প যোগ (Kaal Sarp Dosh) সৃষ্টি হয়। যদি পরপর পাঁচটি ঘর খালি না থাকে সে ক্ষেত্রে কোন আংশিক কালসর্প যোগ সৃষ্টি হয় না। যদি রাহু বা কেতু সহিত কোন একটি বা একাধিক গ্রহ যুক্ত থাকে সে ক্ষেত্রে আংশিক কালসর্প দোষ সৃষ্টি হয়। কালসর্প দোষ বারো রকমের হয়। ১। অনন্ত কাল সর্প দোষ, ২।কুলিক কালসর্প দোষ, ৩।বাসুকি কালসর্প দোষ, ৪। শঙ্খপাল কালসর্প দোষ, ৫। পদ্ম কালসর্প দোষ, ৬। মহাপদ্ম কালসর্প দোষ, ৭। তক্ষক কালসর্প দোষ, ৮। কর্কটক কালসর্প দোষ, ৯। শঙ্খচূড় কালসর্প দোষ, ১০। ঘটক কালসর্প দোষ, ১১। বিষধর কালসর্প দোষ ও ১২। শেষনাগ কালসর্প দোষ

শেষনাগ কালসর্প দোষ
শেষনাগ কালসর্প দোষ
অনন্ত কাল সর্প দোষ
অনন্ত কাল সর্প দোষ

আর্থিক থেকে শারীরিক, কালসর্প দোষ সবরকমভাবে জীবন নষ্ট করে দেয়। তবে এবার আসতে চলেছে কিছু সুখবর। কয়েকটি রাশির ক্ষেত্রে দীর্ঘ ১৫১ বছর পরে কাটতে চলেছে এই ভয়াল কালসর্প দোষ। মোট ছয় রাশির জীবনে কালসর্প দোষ কাটতে চলেছে। এই ছয় রাশি হল – মীন, ধনু, সিংহ, কন্যা, বৃষ, কর্কট এবং মেষ। এই ছয় রাশির জীবনে অত্যন্ত ভালো সময় আসতে চলেছে দ্রুত। অন্যের সাহায্যে বা একক প্রচেষ্টায় নতুন আইডিয়া পাবেন। কর্মক্ষেত্রে উন্নতি করবেন খুব সহজে।

২০২০ সালের চন্দ্রগ্রহনে পাঁচটি রাশির প্রভাব – আরও জানতে ক্লিক করুন ।

ছয় রাশির স্বাস্থ্যও অনেকটা ভালো হবে। ঘরের সহজপাচ্য খাবার খান। বাইরের খাওয়ার ওপরে নিয়ন্ত্রণ রাখা জরুরি। পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলোতেও মন দেবে ছাত্র-ছাত্রীরা। কাজের ক্ষমতা আগের চেয়ে বাড়বে। এবার সঠিকভাবে বিয়ের প্রস্তাব পাবেন। বাবা-মার পরামর্শ মেনে কাজ করলে সাফল্য পাবেন। পঞ্চমীতে সঠিক তিথিতে পুজো করা হয়, তবে এই দোষ কাটিয়ে ওঠা সম্ভব। মাঘ মাসে বাড়িতে কালসর্প যন্ত্র টাঙিয়ে তার পুজো করারও বিধান রয়েছে জ্যোতিষশাস্ত্রে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *