Bangladesh follows herd immunity way to win over Coronavirus

বাংলাদেশ কি এবার হার্ড ইমিউনিটির পথে!

বাংলাদেশ

‘হার্ড ইমিউনিটি’ (Herd immunity) বা ‘গণ রোগপ্রতিরোধ সক্ষমতা অর্জন’ যে কোনো মহামারি মোকাবিলার শেষ প্রতিকার। সংক্রমণের বর্তমান প্রেক্ষাপটে …

দেশকে বাঁচাতে মরিয়া বাংলাদেশ সরকার। গোষ্ঠী সংক্রমণের একটা ভয় তৈরী হয়েছে। ‘হার্ড ইমিউনিটি’ (Herd immunity) বা ‘গণ রোগপ্রতিরোধ সক্ষমতা অর্জন’ যে কোনো মহামারি মোকাবিলার শেষ প্রতিকার। সংক্রমণের বর্তমান প্রেক্ষাপটে আমরা সবাই কমবেশি বিভ্রান্ত। একদিকে নিরাপদে বাসায় না থাকলে সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঝুঁকি রয়েছে, অন্যদিকে বাসায় থাকলেও দারিদ্র্যের জন্য এই ঝুঁকিগুলো কমবেশি আছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউটের হিসাবমতে, দৈনিক ৩ হাজার কোটি টাকার বেশি ক্ষতি দুই মাস ধরে বাংলাদেশের অর্থনীতিকে নিতে হয়েছে।

বাংলাদেশে ৬ই জুন একাদশে ভর্তি অনলাইনে – আরও জানতে ক্লিক করুন …

হার্ড ইমিউনিটি কি ও কেন?

বাঁহলাদেশে স্বাস্থ্য খাত, শিক্ষা খাত, শিল্প খাতসহ বাংলাদেশের আর্থসামাজিক খাতগুলো আজ সংক্রমিত এবং বিপর্যস্ত। পৃথিবীতে এর আগে যত মহামারি এসেছে তা শেষ হয়েছিল ‘হার্ড ইমিউনিটি’র মাধ্যমেই। এই প্রতিরোধ সক্ষমতা আমরা পেতে পারি দুই ভাবে— ভ্যাকসিনের মাধ্যমে বা প্রাকৃতিক ভাবে। গণমাধ্যমের সংবাদ অনুযায়ী, প্রায় ৮০০ কোটি মানুষের জন্য এই ভ্যাকসিন আবিষ্কার ও পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শেষ করতে অন্তত এক বছর সময় লাগবে। হার্ড ইমিউনিটি বলতে সাধারণভাবে বোঝায়, একটি অঞ্চলের সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগোষ্ঠী (৭০ থেকে ৯০ শতাংশ) যখন একটি সংক্রামক রোগের বিরুদ্ধে প্রতিরোধী হয়, সেই পরিস্থিতিকে বোঝানো হয়।

বাংলাদেশে নগদ অর্থ পাবে ৫০ লাখ দরিদ্র পরিবার – আরও জানতে ক্লিক করুন …

করোনা সংক্রমণ প্রতিহত করার পথ:

বাংলাদেশে এই ভাইরাসটি হার্ড ইমিউনিটির জন্য কীভাবে কাজ করবে, কত সময় নেবে, পুনরায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কতটুকু, আরও অনেক বিষয় এখন পর্যন্ত স্পষ্ট নয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান পরিস্থিতিতে, রেকর্ডসংখ্যক করোনা সংক্রমণের পরও এই রোগ প্রতিরোধের খুব কাছাকাছি পৌঁছায় নি। হার্ড ইমিউনিটি কিংবা জনগণকে স্বেচ্ছায় করোনা প্রতিরোধে সংক্রমিত হওয়ার পদ্ধতি অবলম্বন করেছিল সুইডেন। যার চড়া মূল্য দিতে হয়েছে স্ক্যান্ডিনেভিয়ান এই দেশটিকে। বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হওয়ার হার তুলনামূলক অনেক কম।

বাংলাদশে ৩০শে মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি বাড়লআরও জানতে ক্লিক করুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *