Overflowing river causes tension in Bangladesh as flood situation arising

নদীর জল বিপদ সীমা ছাড়িয়েছে – বন্যা হওয়ার আশঙ্কা প্রবল

বাংলাদেশ

বর্তমানে দেশের ১৪টি নদীর জল ২২টি এলাকায় বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত (Overflowing river) হচ্ছে। ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, তিস্তা ও মেঘনার জল…

নিজস্ব সংবাদদাতা: বাংলাদেশে ভাইরাসের সাথে প্রকট হচ্ছে বন্যা। দেশের বিভিন্ন নদনদীতে জল বেড়েই চলেছে। ফলে বন্যা পরিস্থিতির ক্রমশ অবনতি হচ্ছে। ইতিমধ্যেই ১৭টি জেলার বিস্তীর্ণ এলাকা জলমগ্ন হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৬টি জেলায় জল ঢুকতে শুরু করেছে। বর্তমানে দেশের ১৪টি নদীর জল ২২টি এলাকায় বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত (Overflowing river) হচ্ছে। ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, তিস্তা মেঘনার জল বিপৎসীমা অতিক্রম করেছে।

পদ্মার জল এদের সাথে দ্রুত গতিতে বাড়ছে। চট্টগ্রাম বিভাগের নদ-নদীর জল দুই কূল ছাপিয়ে উপচে পড়ার অবস্থাতে পৌঁছেছে। বাংলাদেশে দক্ষিণ-পূর্ব এবং মধ্যাঞ্চলের আরও কয়েকটি নদীর জল বিপদসীমার উপরে চলে যেতে পারে। এই দুই অঞ্চলের আরও কয়েকটি জেলা বন্যাকবলিত হতে পারে। আগামী তিন দিন আর আপার মেঘনা নদীর অববাহিকায় আগামী ২৪ ঘণ্টা বন্যার জল বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে। তবে তিস্তা ও ধরলা নদীতে জল কমতে পারে।

Overflowing river causes tension in Bangladesh as flood situation arising
Overflowing river causes tension in Bangladesh as flood situation arising

ফলে কয়েকটি জেলায় বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে। পাবর্ত্য এলাকায় মুহুরি নদীর ৬ স্থানে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে ফেনী জেলার পরশুরাম ও ফুলগাজীর ১২টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। বাংলাদেশে গত তিন দিন ধরে ব্যাপক হরে বৃষ্টি হচ্ছে। এই বন্যা আগস্টের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত থেকে যেতে পারে। ১৯৯৮ সালের ৩৩ দিনের বন্যার রেকর্ড ছুঁতে যাচ্ছে এই বন্যা। সেই ’৯৮-এর পর দ্বিতীয় দীর্ঘস্থায়ী বন্যা ছিল গত বছর ১৭ দিন।

[ আরো পড়ুন ] চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের অতিরিক্ত দুই মাসের বেতন

এই বছরের বন্যা এরই মধ্যে ১৭ দিন অতিক্রম করে যাচ্ছে। নীলফামারি, লালমনিরহাট, রংপুর, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, বগুড়া, জামালপুর, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল, নাটোর, রাজবাড়ী, সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা এবং ফেনী জেলায় বন্যা চলছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় যমুনা নদী মানিকগঞ্জের আরিচা, পদ্মা নদী মুন্সীগঞ্জের ভাগ্যকূল ও মাওয়া এবং কুশিয়ারা নদী শেরপুর পয়েন্টে বিপদ সীমা অতিক্রম করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *