River transport strike in Bangladesh

বাংলাদেশে আজ মধ্যরাত থেকে অনির্দিষ্টকালের নৌযান ধর্মঘট

বাংলাদেশ

১৯শে অক্টোবর, রাত ১২টা থেকে এই ধর্মঘট (River transport strike) শুরু হবে। এই ধর্মঘট সফল করতে গত শনিবার সকালে বরিশাল নগরীতে …

নিজস্ব সংবাদদাতা: বাংলাদেশে নৌযান ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন। শ্রমিকদের হয়রানি ও চাঁদাবাজি বন্ধসহ ১১ দফা নিয়ে এই অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট। আগামী ১৯শে অক্টোবর, রাত ১২টা থেকে এই ধর্মঘট (River transport strike) শুরু হবে। এই ধর্মঘট সফল করতে গত শনিবার সকালে বরিশাল নগরীতে মিছিল ও সমাবেশ করেন বাংলাদেশের অসংখ্য নৌযান শ্রমিকরা। মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন এই ঘোষণা করে।

River transport strike in Bangladesh

সেই মানববন্ধনে জানানো হয়, করোনা মহামারির মধ্যে নৌযান শ্রমিকরা কাজ করেছেন। অথচ চার মাস অতিক্রম করলেও তাদের প্রতিশ্রুত খাদ্যভাতা দেওয়া হয়নি। তাছাড়া সরকার বা মালিকের পক্ষ থেকে একটি ধন্যবাদও আসেনি। এই ১১ দফা দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত নৌযান শ্রমিকদের ধর্মঘট দেশব্যাপী চলবে। ধর্মঘটে যাত্রীবাহী ও পণ্যবাহী, অয়েল ট্যাঙ্কারসহ সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
দাবি উঠেছে, ভারতগামী নৌযানে শ্রমিকদের ল্যান্ডিং পাসের ব্যবস্থা করা, কন্ট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড গঠন করা, মৃত্যুকালীন ভাতা ১০ লাখ টাকা নির্ধারণ ও নৌযান শ্রমিকদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা বন্ধ করা।

[ আরও পড়ুন ] বাংলাদেশে আজ থেকে ইলিশ ধরা, পরিবহন ও বিক্রি বন্ধ

বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. শাহ আলম জানান, নৌযান শ্রমিকদের নিয়োগপত্র প্রদান, বেতন-ভাতা বৃদ্ধি, খাদ্যভাতা প্রদান, প্রভিডেন্ট ফান্ড গঠন, কর্মরত অবস্থায় শ্রমিকদের মৃত্যু হলে পরিবারকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ, ভারতগামী নৌযানের শ্রমিকদের ল্যান্ডিং পাস প্রদান, নৌপথে নাব্যতা রক্ষা এবং নৌপথে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, ডাকাতি ও পুলিশি নির্যাতন বন্ধসহ ১১ দাবিতে শ্রমিকরা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *