A massive earthquake in Bengal is possible before October 2020

কলকাতা, ঢাকা সহ বাংলায় বড়মাপের ভূমিকম্পের আশঙ্কা

কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের খবর

করোনা প্রবেশ করেছে গ্রাম বাংলায়। অর্থনীতি বাঁচাতে আনলকও জরুরি। এরই মাঝে পশ্চিমবঙ্গে বৃহৎ আকারের ভূমিকম্পের (Earthquake in Bengal) পূর্বাভাস …

দেশ ও রাজ্য জুড়ে শুরু হয়েছে আনলক ওয়ান। কাতারে কাতারে মানুষ আবার রাস্তায়। থাকছে গোষ্ঠী সংক্রমণের ভয়ও। পরিযায়ী শ্রমিকদেরকে মাধ্যম করে করোনা প্রবেশ করেছে গ্রাম বাংলায়। অর্থনীতি বাঁচাতে আনলকও জরুরি। এরই মাঝে পশ্চিমবঙ্গে বৃহৎ আকারের ভূমিকম্পের (Earthquake in Bengal) পূর্বাভাস দিচ্ছে বিশেষজ্ঞরা।

করোনাভাইরাস আর অম্ফানের পর বাংলার অবস্থা এমনিতেই জরাজীর্ণ। পূর্বাভাস অনুসারে এবছর দূর্গা পুজোর আগেই বঙ্গে ভূমিকম্পের আশঙ্কা প্রবল। কলকাতা ও শহরতলিতে এই ভূমিকম্প সবথেকে বেশি প্রভাব ফেলতে পারে। ইতিমধ্যেই গত কয়েকদিন ধরে লাগাতার ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটছে।

রাজ্যের ৩০ লক্ষ অ্যাকাউন্টে পৌছালো ১৪৪৪ কোটি টাকা – আরও জানতে ক্লিক করুন …

করোনা ও অম্ফান ঝড়ের প্রভাব এখনো বাংলাকে গ্রাস করে রেখেছে। এরই মাঝে ভূমিকম্পের এই অশনি সংকেত সরকারকে ভাবতে বাধ্য করছে। কারণ ভূমিকম্পে বাড়ি ঘর, রাস্তা ঘাট, গাড়ি ঘোড়া সহ সমগ্র মানব জীবন ও প্রাণী কুলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। আর একটি বড় আকারের ভূমিকম্পের প্রভাব থেকে মুক্তি পেতে যেকোনো রাজ্য বা দেশের ১ থেকে ১০ বছরও সময় লাগতে পারে।

ঝাড়খণ্ডে পৌঁছেছে পঙ্গপালের দল, এবার বাংলায় প্রবেশ – আরও জানতে ক্লিক করুন …

মুভমেন্ট লক্ষ্য করা আছে বঙ্গীয় প্লেটোনিক স্তরে। দুদিন আগেই কর্ণাটকের হাম্পি ও ঝাড়খণ্ডের জামশেদপুরে মৃদু মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছে। এর সাথে দিল্লি সহ উত্তর ভারতের একাংশ এবং বাংলা ও বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী এলাকায় ভূমিকম্প হয়েছে। একের পর এক এত ছোট ছোট ভূমিকম্প বড়সড় ভূমিকম্পেরই পূর্বাভাস দিচ্ছে বলে জানাচ্ছেন পরিবেশবিদরা।

সরকারি পরিবেশবিদরা মনে করছেন, পুজোর আগেই বা পুজোর মধ্যে ভূমিকম্পের সম্ভাবনা জোরালো হচ্ছে। জানানো হয়েছে, ভূমিকম্পের কবল থেকে রেহাই পাবে না ঢাকা শহরও। ভূমিকম্পের ক্ষয় ক্ষতির পরিমান আম্ফান ঝড়ের থেকেও ব্যাপক হতে পারে । ভেঙে পড়তে পারে বড় বড় সব অট্টালিকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *