সুপ্রিমকোর্ট অসম NRC সমন্বয়ক প্রতীক হাজেলাকে সরালো পদ থেকে

সুপ্রিমকোর্ট অসম NRC সমন্বয়ক প্রতীক হাজেলাকে সরালো

কলকাতা

সুপ্রিমকোর্ট অসম NRC সমন্বয়ক প্রতীক হাজেলাকে সরালো| অসমের জাতীয় নাগরিক পঞ্জির পদ থেকে সরানোর নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট।

সুপ্রিমকোর্ট অসম NRC সমন্বয়ক প্রতীক হাজেলাকে সরালো| অসমের জাতীয় নাগরিক পঞ্জির সমন্বয়কারী অফিসার প্রতীক হাজেলাকে পদ থেকে সরানোর নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। কারণ ব্যাখ্যা না করা হয়নি আদালতের তরফে। সাত দিনের মধ্যে কেন্দ্রকে নির্দেশ কার্যকর করতে বলা হয়েছে। তবে যতদিন পর্যন্ত এই বদলি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হচ্ছে ততদিন ডেপুটেশনে থাকবেন হাজেলা, জানিয়েছেন ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন একটি ডিভিশন বেঞ্চ। তবে,এই হাজেলার বিরুদ্ধে তথ্য অনিয়মের অভিযোগ জমা পড়েছিল বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের থেকে। এর অন্যতম ছিল অসমের শাসক দল বিজেপি।

এদিকে অসমে চালু হয়েছে এনআরসি। আর ইতিমধ্যেই বাদ পড়েছেন কয়েক লক্ষ ভারতীয় নাগরিকই। তাই নিয়ে বিতর্ক চলছে গোটা দেশ জুড়ে। আর এই পরিস্থিতিতে অসম এনআরসি–র রাজ্য সমন্বয়ক প্রতীক হাজেলাকেই মধ্যপ্রদেশে বদলির নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। আইএএস অফিসার হাজেলাকে মধ্যপ্রদেশে স্থানান্তরিত করতে সরকারকে নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। এ বিষয়ে সরকারের আইনজীবী অ্যাটর্নি জেনারেল কেকে বেণুগোপাল কারণ ব্যাখ্যা চান প্রধান বিচারপতির কাছে। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানান, কারণ তো রয়েছেই।

তবে কারণ থাকলেও তা প্রকাশ্যে জানাতে চায়নি শীর্ষ আদালত। সুপ্রিম কোর্টের আচমকা এই নির্দেশে অবাক হয়েছেন অনেকেই। অসমে নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের পর রাজনৈতির দলগুলি থেকে শুরু করে নানা সংগঠন আক্রমণ শানিয়েছে হাজেলার বিরুদ্ধে। অভিযোগ তোলা হয়েছে, ষড়য়ন্ত্র করে বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের নাগরিকত্ব প্রদান করেছেন এনআরসির কোঅর্ডিনেটর। আইএএস অফিসার হাজেলার তত্ত্ববধানে প্রায় ৫ হাজার কর্মী কাজ করেছেন এনআরসি-র জন্য। চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর ব্যাপক গরমিলের অভিযোগ ওঠে এনআরসি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *