10 Ration Dealers Suspended in Purulia

Ration Dealers Suspended: পুরুলিয়ায় সাসপেন্ড ১০ রেশন ডিলার

কলকাতা

বেনিয়মের অভিযোগে পুরুলিয়া জেলার দশ জন রেশন ডিলারকে সাসপেন্ড (Ration Dealers Suspended) করল জেলা খাদ্য দফতর। আজ থেকেই রাজ্যে সরকারি …

পুরুলিয়া: বেনিয়মের অভিযোগে পুরুলিয়া জেলার দশ জন রেশন ডিলারকে সাসপেন্ড (Ration Dealers Suspended) করল জেলা খাদ্য দফতর। আজ থেকেই রাজ্যে সরকারি উদ্যোগে রেশনে চাল দেওয়ার ব্যবস্থা চালু হয়েছে। আর তাই নিয়েই আজ পুরুলিয়ায় রণক্ষেত্র তৈরী হলো। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এগিয়ে এসেছেন খাদ্য সংকটের মোকাবিলায়। রেশন কার্ডহীন সমস্ত মানুষকেই পাঁচ কেজি করে চাল-গম দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই নথিভুক্ত অথচ রেশন কার্ড নেই এমন প্রায় ১৬ লক্ষ রাজ্যবাসীর হাতে চাল-গম পৌঁছনোর ব্যবস্থা সম্পূর্ণ করল খাদ্যদপ্তর। সকালে পুরুলিয়ার আঁকরোর রেশন দোকানে লাইন দেন স্থানীয়রা। অভিযোগ, বরাবরের মতোই এদিনও বরাদ্দ সামগ্রীর থেকে নির্দিষ্ট অংশ কেটে তা স্থানীয়দের দেওয়া হচ্ছিল। এই পরিস্থিতিতে কেন বরাদ্দের তুলনায় কম সামগ্রী দেওয়া হচ্ছে এই নিয়ে ক্ষোভ জানান অনেকেই।

10 Ration Dealers Suspended in Purulia
10 Ration Dealers Suspended in Purulia

দ্রুত পরিস্থিতি আয়ত্তের বাইরে চলে যায়। রেশন ডিলার ও সাহায্যকারী সিভিক ভলান্টিয়ারের উপর চড়াও হন স্থানীয়রা। সামাল দিতে সেখানে দ্রুত পৌঁছে যায় বরো থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। স্থানীয়রা সমবেত হয়ে জানান, রেশন ডিলারকে তাঁদের হাতে তুলে দিতে হবে। পরিস্থিতি আয়ত্তের বাইরে চলে যাওয়ায় লাঠিচার্জ করে পুলিশ। সাথে সাথে ব্যাপক ইটবৃষ্টি শুরু করে স্থানীয়রা। আরো আক্রমণাত্মক হয়ে ভাঙচুর করা হয় পুলিশের গাড়িতে। জনতার ইটের আঘাতে জখম হন এক পুলিশ কর্মী।

রেশন কার্ড নেই এমন প্রায় ১৬ লক্ষ রাজ্যবাসীর হাতে চাল-গম পৌঁছনোর ব্যবস্থা – আরও জানতে ক্লিক করুন …

এই অকাম্য বেনিয়মের অভিযোগে পুরুলিয়া জেলার দশ জন রেশন ডিলারকে সাসপেন্ড করল জেলা খাদ্য দফতর। পাশাপাশি, জঙ্গলমহলের আরও দুই রেশন ডিলারকে একই অভিযোগে শোকজ় করা হয়েছে। তবে রেশন ডিলারদের সংগঠন সরাসরি অভিযোগ মানতে চাইছেন না। পুরুলিয়া জেলা শাখার সভাপতি আহ্লাদচন্দ্র মাজি জানান, ‘‘আমাদের দশ জন সহকর্মীকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। দোকানে ভিড় থাকায় সময়মতো ক্যাশমেমো না দিতে পারা বা খাতায় হিসেব না উল্লেখ করার মতো ছোটখাটো কিছু ভুল হয়েছে। তবে কেউই গ্রাহকদের রেশনে মাল কম দিয়েছেন, এ রকম কোনও অভিযোগ নেই। জেলার সমস্ত ব্লকে সদস্যেরা ভাল ভাবেই কাজ করছেন। আমরা সাসপেনশন তুলে নেওয়ার জন্য দফতরকে অনুরোধ করব।’’ খাদ্যদপ্তরের দিকে তাকিয়ে আছে পুরুলিয়ার মানুষ।

এক মাস ধরে পুলিশের রক্তদান কর্মসূচি – আরও জানতে ক্লিক করুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *