4 Convicted in Jaipur Blast

Jaipur Blast: জয়পুর বিস্ফোরণে দোষী সাব্যস্ত ৪

কলকাতা

ঠিক ১১ বছর পর অবশেষে জয়পুর ধারাবাহিক বিস্ফোরণ (Jaipur Blast) মামলায় চার জনকে দোশী সাব্যস্ত করল আদালত। তবে …

অনেকটা সময় কেটে গেছে। একসময় ধারাবাহিক বিস্ফোরণে কেঁপে উঠে ছিল দেশ। ঠিক ১১ বছর পর অবশেষে জয়পুর ধারাবাহিক বিস্ফোরণ (Jaipur Blast) মামলায় চার জনকে দোশী সাব্যস্ত করল আদালত। তবে অভিযুক্তদের মধ্যে আরও ১ জনকে তথ্য প্রমাণের অভাবে বেকসুর খালাস করে দেওয়া হয়। সেই ২০০৮ সালের ১৩ই মে, লাগাতার আটটি বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছিল রাজস্থানের পিংক সিটি। সেদিনের সেই ভয়াবহ ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছিলেন কমপক্ষে ৭০ জন ও আহত হয়েছিলেন আরও কমপক্ষে ১৮৫জন। সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠী ইন্ডিয়ান মুজাহিদ্দিনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ইয়াসিন ভটকাল এই বোমা বিস্ফোরণের ঘটনার মাস্টারমাইন্ড বলে মনে করা হচ্ছে।

২০০৮ সালের জয়পুর ধারাবাহিক বিস্ফোরণে জড়িত থাকায় ৪ জনেক দোষী সাব্যস্ত করল জয়পুরের বিশেষ আদালত। তাদের বিরুদ্ধে ইউএপিএ, বিস্ফোরণ আইন ও পিডিপিপি আইনে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। মানক চক ও কোতওয়ালি থানা এলাকার ওই বিস্ফোরণে সবেমিলিয়ে মোট ৮টি মামলা হয়েছিল। ঘটনার তদন্ত করছিল রাজস্থান এটিএস। তদন্ত শেষে মোট ৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেওয়া হয়। তাদের মধ্যে থেকে দোষী সাব্যস্ত হল মোট ৪ জন। এরা হল মহম্মদ শাহবাজ হোসেন, মাহম্মদ সাইফ, মহম্মদ সারওয়ার ও মহম্মদ সালমান।

জয়পুরের হাওয়া বিস্ফোরণ স্থলের কাছ থেকেই একটি সাইকেলের হদিশ পাওয়া যায়। যা টুকরো টুকরো অবস্থায় ছিল। তার থেকেই আরডিএক্স-এর সুত্র পায় তদন্তকারী দল। তদন্তকারীদের অনুমান সাইকেলে আরডিএক্স রেখে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছিল। পরে একের পর এক বিস্ফোরণ ঘটে ত্রিপলিয়া বাজার, হনুমান মন্দির, জেহরি বাজার, মানস চক, বাড়ি চৌপল ও চোটি চৌপল এলাকায়। স্তব্ধ হয়ে যায় গোটা জয়পুর। প্রাথমিক তদন্তের পর অভিযোগের আঙুল ওঠে বাংলাদেশের জঙ্গি সংগঠন হরকত-উল-জিহাদি ইসলামি বা হুজি’র দিকে। শাহবাজ হুসেনের বিরুদ্ধে তেমন কোনও তথ্য-প্রমান আদালতে না দাখিল করায় এদিন আদালত তাকে বেকসুর খালাস করে। হুসেনের বিরুদ্ধে আভিযোগ ছিল ঘটনার পর সেই মেল পাঠিয়ে এই ঘটনার দায় স্বীকার করেছিল। আগামী বৃহস্পতিবার এই মামলার রায় ঘোষণা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *