Amitabh Bachchan 77th Birth Anniversary

Amitabh Bachchan: বিগ বি অমিতাভ বচ্চনের জন্মদিন

কলকাতা

অমিতাভ বচ্চন (Amitabh Bachchan) হলেন একজন জনপ্রিয় ভারতীয় চলচিত্র অভিনেতা, প্রযোজক, টেলিভিশন উপস্থাপক ও সাবেক রাজনীতিবিদ।

অমিতাভ বচ্চন (Amitabh Bachchan) হলেন একজন জনপ্রিয় ভারতীয় চলচিত্র অভিনেতা, প্রযোজক, টেলিভিশন উপস্থাপক ও সাবেক রাজনীতিবিদ। তিনি ১৯৪২ সালের ১১ই অক্টোবর জন্মগ্রহণ করেন। অজস্র মানুষের শুভকামনা সঙ্গে নিয়ে শুক্রবার ৭৭ বছর বয়সে পা দিলেন বিগ বি। ১৯৭০-এর প্রথম দিকে তিনি বলিউড চলচ্চিত্র জগতে “রাগী যুবক” হিসেবে জনপ্রিয়তা লাভ করেন এবং সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হয়ে ওঠেন। বলিউডের শাহেনশাহ ও সহস্রাব্দের সেরা তারকা হিসেবে পরিচিত বচ্চন তার পাঁচ দশকের অধিক সময়ের কর্মজীবনে ১৯০টির অধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। ১৯৮০-এর দশকে তিনি রাজনীতিতে প্রবেশ করেন এবং ১৯৮৪ থেকে ১৯৮৭ পর্যন্ত ভারতীয় সংসদে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ছিলেন।

৪টি শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং ১৫টি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক পুরস্কার। অভিনয় ছাড়াও তাকে নেপথ্য গায়ক, চলচ্চিত্র প্রযোজক, টেলিভিশন সঞ্চালক হিসেবেও দেখা গেছে। তিনি কৌন বনেগা ক্রোড়পতি অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন। ১৯৮৪ সালে ভারত সরকার তাকে ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা পদ্মশ্রী, ২০০১ সালে তৃতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা পদ্মভূষণ, এবং ২০১৫ সালে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা পদ্মবিভূষণে ভূষিত করে। বিশ্ব চলচ্চিত্রে তার অনন্য কর্মজীবনের স্বীকৃতি হিসেবে ২০০৭ সালে ফ্রান্স সরকার তাকে ফ্রান্সের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা লেজিওঁ দনরের নাইট উপাধিতে ভূষিত করে।

তাঁর বাবা হরিবংশ রাই বচ্চন এক জন নামকরা হিন্দি কবি ছিলেন। মা তেজী বচ্চন ফয়জলাবাদের এক পাঞ্জাবি পরিবারের সদস্য ছিলেন। বাবার সঙ্গে তাঁর তোলা ছবি পোস্ট করে কন্যা শ্বেতা লিখেছেন, ‘যখন তুমি পাহাড়ের চূড়ার কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছো, তখনও চড়ে যাও। হ্যাপি বার্থ ডে পাপা, আই লাভ ইউ এন্ডলেসলি।’ ১৯৭৩-এ বচ্চনের চলচ্চিত্র জীবনে একটা উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন আসে যখন পরিচালক প্রকাশ মেহেরা তার জঞ্জীর (১৯৭৩) ছবির মুখ্য ভূমিকা, ইন্সপেক্টর বিজয় খান্নার চরিত্রে তাকে নির্বাচিত করেন।প্রথীতযশা চলচ্চিত্র পরিচালক সত্যজিত রায় বচ্চনের কন্ঠস্বর শুনে এতো মুগ্ধ হয়েছিলেন যে তিনি তার ছবি শতরঞ্জ কে খিলাড়ি-তে তাকে ভাষ্যকারের ভূমিকা দিয়েছিলেন কারণ ছবিতে তার উপযুক্ত কোনো চরিত্র ছিলো না। তার অগণিত চলচ্চিত্র সকলের কাছে প্রিয় হয়ে থাকবে। আপনি ভালো থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *