Bansdroni Youth Who Trapped in Well Dies

Youth Trapped in Well: উদ্ধার বাঁশদ্রোণীর যুবকের দেহ

কলকাতা

গতকাল দুপুরবেলায় বাড়ির সামনের কুয়োয় পড়ে যাওয়া এক যুবককে (Youth Trapped in Well) গভীর রাত পর্যন্ত চেষ্টা করেও উদ্ধার করা …

প্রশিক্ষিত দমকলের কি করুন দশা! হার মানতে হলো কুয়োর মিস্ত্রির কাছে। গতকাল দুপুরবেলায় বাড়ির সামনের কুয়োয় পড়ে যাওয়া এক যুবককে (Youth Trapped in Well) গভীর রাত পর্যন্ত চেষ্টা করেও উদ্ধার করা গেল না। সাড়ে ১৭ ঘণ্টা পর আজ শনিবার সকালে উদ্ধার করা হয় ওই যুবকের দেহ। কয়েক ঘণ্টার অভিযানে কুয়ো থেকে দেহ উদ্ধার করে কুয়ো মিস্ত্রিরা। শুক্রবার বাঁশদ্রোণীর সোনালি পার্ক এলাকায় ওই যুবককে কুয়ো থেকে বার করে আনতে দীর্ঘক্ষণ চেষ্টা চালায় দমকল, কলকাতা পুলিশ ও তাদের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ডুবুরিরা।

অবশেষে আজ শনিবার সকালে উদ্ধার হল সম্রাট সরকার নামে ওই যুবকের নিথর দেহ। উদ্ধারকারীদের দাবি, উদ্ধারের জন্য প্রয়োজনীয় একাধিক সরঞ্জাম ছিল। তবে কুয়োর বেড় সংকীর্ণ হওয়ায় সমস্যা তৈরি হয়। তাই সঠিক সময়ে ওই যুবককে উদ্ধার করা যায়নি। বাঁশদ্রোণীর রিজেন্ট পার্কের সোনালি পার্ক এলাকায় বাস সম্রাট সরকারের। বছর আঠাশের ওই যুবক পাড়ায় বাপি নামে পরিচিত ছিলেন। মৃগী ছিল তাঁর। সেই কারণেই সম্ভবত তাঁর কোনও কর্মসংস্থান ছিল না।

গতকাল তিনি কুয়োর পাড়ে বাসন মাজতে বসেছিলেন। টাল সামলাতে না পেরে তখনই ৫০ ফিট কুয়োয় পড়ে যান বাপি। গোটা ব্যাপারটি বুঝতে পেরে আশপাশের মানুষ তাঁকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি। দমকলের তিনটি ইঞ্জিন কাজ শুরু করে। দমকল কর্মীরা পাম্প চালিয়ে জল বের করা শুরু করেন কুয়ো থেকে। নামানো হয় ডুবুরিও। প্রায় পঞ্চাশ ফুট গভীর পাতকুয়ো থেকে উদ্ধারকাজে হাত লাগায় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীও। ব্যর্থতা সকল কাজে। দমকল কর্মীদের ভূমিকা নিয়ে রীতিমতো ক্ষুব্ধ সকলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *