Bowbazar Metro Railway Compensation For Affected Families

Bowbazar Metro: মুচলেকা না দিলে মেট্রো রেলের চেক পাবে না

কলকাতা

এবার কেএমআরসিএলের তরফে ক্ষতিপূরণ যারা পাচ্ছেন তাদের দিয়ে লিখিয়ে নেওয়া হচ্ছে মুচলেকা (Bowbazar Metro)।

বৌবাজারের (Bowbazar Metro) ধসের পরিস্থিতি অনেকটাই স্বাভাবিক হয়েছে। কলকাতা শহরে প্রাক পুজোর বিপদ সামলে এনেছে কলকাতা মেট্রোরেল কর্পোরেশন লিমিটেডের । কিন্তু মস্ত সমস্যা দেখা দিয়েছে এই বিপর্যয়ের ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ক্ষেত্রে। প্রথম দফায় বেশ কিছু চেক দেওয়া হয়। পরবর্তী ধাপে শুরু হয়েছে অনলাইন ট্রান্সফার। কিন্তু এরই মধ্যে এমন বেশ কিছু আবেদন কলকাতা মেট্রোরেল কর্পোরেশন লিমিটেডের কাছে জমা পড়েছে, যে নিয়ে নতুন করে তৈরি হয়েছে মস্ত জট। এবার কেএমআরসিএলের তরফে ক্ষতিপূরণ যারা পাচ্ছেন তাদের দিয়ে লিখিয়ে নেওয়া হচ্ছে মুচলেকা। কেউ অনৈতিক ভাবে অর্থ দাবি করে ক্ষতিপূরণ নিয়েছেন তা জানা যায়, তবে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেবে কলকাতা মেট্রোরেল কর্পোরেশন লিমিটেড।

এ যেন অনেকটা বউবাজারে ঠগ বাছতে নয়া সিদ্ধান্ত কেএমআরসিএলের ৷ আসলে লিখিত ভাবে মুচলেকা দিলেই মিলবে ক্ষতিপূরণের ৫ লক্ষ, জানিয়ে দিল কেএমআরসিএল ৷ আর ভুয়ো তথ্য দিয়ে টাকা নেওয়ার একাধিক অভিযোগ উঠেছে বউবাজারে ৷ আলাদা পরিবার বলে চেক নেওয়ার অভিযোগ পাওয়ার পরেই এই সাহসী সিদ্ধান্ত নেয় কেএমআরসিএল ৷ ফলে আজ বৃহস্পতিবার ক্ষতিপূরণের চেক বিলি বন্ধ রাখা হয়েছে ৷ কেএমআরসিএলের তরফে জানানো হয়, মুচলেকা দিতে হবে প্রযেক্টি ক্ষতিগ্রস্তপরিবারগুলিকে ৷ আর সঠিক তথ্য দিলে তবেই মিলবে ক্ষতিপূরণ, কিন্তু ভুয়ো তথ্য দিলে থাকবে কড়া আইনানুগ ব্যবস্থা ৷

কাউন্সিলর সত্যেন্দ্রনাথ দে জানান, ‘‘মেট্রো কর্তৃপক্ষ ক্ষতিপূরণের সমস্ত দাবিদারদের দিয়ে একটা ফর্ম পূরণ করিয়ে নিচ্ছেন। দাবিদারকে নিজের সম্পর্কে সমস্ত তথ্য ওই ফর্মে লিখতে হবে। ওই এলাকার অনেকেরই ভোটার কার্ড, আধার কার্ড নেই। অনেকেই দীর্ঘ দিনের ভাড়াটিয়া কিন্তু বহু দিন ওই এলাকায় থাকেন না। অথচ তাঁরাও যদি এলাকা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর ক্ষতিপূরণের দাবি করেন, সেটা ঠিক নয়। এই সমস্যা কী ভাবে সমাধান করা যাবে তা নিয়ে নবান্নে মিটিং রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে সমাধান খোঁজা হবে।’’ অনেক দাবিদারই একই পরিবারের সদস্য অথচ তাঁরা আলাদা থাকার দাবি করছেন। কোনও পরিবারে তিন ছেলে হলে, তাঁরা প্রত্যেকেই আলাদা থাকার দাবি জানাচ্ছে। স্বামী-স্ত্রীও আলাদা থাকার দাবি জানিয়ে আলাদা ক্ষতিপূরণও চাইছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *