CBI brings lookout notice against Anup Maji or Lala

লালার বিরুদ্ধে নোটিস – কয়লা কাণ্ডে সরব সিবিআই

কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ

কয়লাকাণ্ডে মূল অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালার (Anup Maji or Lala) বিরুদ্ধে এবার লুকআউট নোটিস জারি করল সিবিআই। সে যাতে বিদেশে …

নিজস্ব সংবাদদাতা: কালো হিরে বা কয়লা নিয়ে বাংলা তেতে আছে। ময়দানে নেমেছে সিবিআই। একের পর এক জট খুলছে। বেরিয়ে পড়ছে নানা মাথার নাম। যদিও এর কেন্দ্রে আছে লালা / অনুপ মাঝি। কয়লাকাণ্ডে মূল অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালার (Anup Maji or Lala) বিরুদ্ধে এবার লুকআউট নোটিস জারি করল সিবিআই। সে যাতে বিদেশে পালিয়ে যেতে না পারে তাই এই পদক্ষেপ নিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাট। লালার এক সহযোগী ব্যবসায়ী নীরজ সিংকেও তলব করা করেছে সিবিআই। গতকাল সোমবার, এই লালা শারীরিক অসুস্থতা দেখিয়ে সিবিআই দপ্তরে হাজিরা এড়িয়ে যায়।

CBI brings lookout notice against Anup Maji or Lala

আসলে বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে রাজ্য ও ভিন রাজ্যে কয়লা পাচার নিয়ে তদন্ত করছে এই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি। সামনে এসেছে অনেক অজানা গোপন তথ্য। গোপনে বেনিয়মের কোটি কোটি টাকার চোরা কারবার চালানো হতো একাধিক রাজ্য জুড়ে। পাচারচক্রের উৎখাতে আসানসোলে শিবির করে চব্বিশ ঘন্টা ধরে তল্লাশি চালাচ্ছে সিবিআই। জানা যাচ্ছে এর প্রতিক্ষেত্রে অভিযুক্ত এই কুখ্যাত লালা। তাকে খুঁজতে কলকাতা ও পুরুলিয়ায় হানা দিয়ে নাগালে পায়নি সিবিআই। সে দক্ষতার সাথে নিজেকে লুকিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছে।

[ আরো পড়ুন ]  প্রধানমন্ত্রী মোদী বাংলায় আসছেন ২৪শে ডিসেম্বর

তবে এই লালা গোপনে মুম্বই পালিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। মুম্বইয়ে সিবিআই আধিকারিকদের সতর্ক করেছে কলকাতার প্রশাসনিক দপ্তর। পাচারকারীদের সঙ্গে ইসিএল কর্তাদের যোগাযোগের প্রমান পেয়েছে সিবিআই। ইসিএলের জায়গায় কয়লা পাচারকারীদের বেআইনি মেশিনের সন্ধান মিলেছে। ২০১৫ থেকে ২০১৭ সালে বিএসএফের পোস্টেড কর্মীদের তালিকা পাঠানো হয়েছে। অনেক রাঘব বোয়াল এর সাথে জড়িত আছে। গরু পাচার কাণ্ডে তদন্তকারীরা সতীশ কুমারের আত্মীয়দের অ্যাকাউন্ট কোটি কোটি টাকার হদিস পেয়েছে। এর সাথে লালার যোগাযোগ আছে।
সন মিলিয়ে এখন লালাকে পেতে সিবিআই মরিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *