Civil Society Protest Against CAA in Kolkata

Civil Society Protest: আইনের প্রতিবাদে রাস্তায় নাগরিক সমাজ

কলকাতা

এবার কলকাতার নাগরিক সমাজের (Civil Society Protest) মানুষেরা পথে নামলেন। আজ বৃহস্পতিবার পথে নেমে বিক্ষোভ দেখালেন …

নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে আন্দোলন শুরু হয়েছে দেশের বিভিন্ন অংশে। শুরু হয়েছিল দেশের উত্তর-পূর্ব প্রান্তি থেকে। ক্রমে তা দ্রুত ছড়িয়ে পরে গোটাদেশে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মাননীয়া মমতা ব্যানার্জী, প্রথম থেকেই এর বিরুদ্ধে পথে নেমেছেন। হাওড়া ও কলকাতার সকল অঞ্চলে পথ-মিছিল করে মানুষের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন। এবার কলকাতার নাগরিক সমাজের (Civil Society Protest) মানুষেরা পথে নামলেন। আজ বৃহস্পতিবার পথে নেমে বিক্ষোভ দেখালেন টলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির একাংশ। মিছিলে হাঁটলেন অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, সোহাগ সেন, ঋদ্ধি সেন ও সুরঙ্গনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো অভিনেতা-অভিনেত্রীরা।

সবাই পথে না নামলেও বিরোধিতা করেছেন অনেকে। ধংসাত্বক আচরণ থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন তারা। শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের ভাষায়, ”ভিটে হারানোর ভয়ে মানুষ। বিশৃঙ্খল আন্দোলন উচিত নয়।এটা আন্দোলনের পথ নয়। শান্তিপূর্ণভাবেও প্রতিবাদ হয়। পশ্চিমবঙ্গবাসীকে সংযত হতে হবে। জোর করে আইন চাপানো উচিত নয়।” বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত বলেন, ” হিংসাত্মক পথে প্রতিবাদ হয় না। শান্তিপূর্ণ পথে প্রতিবাদ হোক।হিংসাত্মক প্রতিবাদে আরও খারাপ হয়। এই প্রতিবাদ কেউ ভালভাবে নিচ্ছেন না।সংযত প্রতিবাদ হোক।” রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্ত জানান, ”এটা প্রতিবাদের পথ নয়। এইভাবে আন্দোলনে কারও লাভ নেই। এই আন্দোলনে মানুষেরই ক্ষতি, ট্রাম-বাস জ্বালালে মানুষেরই বিপদ।”

পথে ব্যানার ধরে হাঁটতে দেখা যায় অপর্ণা, কৌশিক ও সোহাগ সেনকে। তাঁদের সঙ্গে ছিল হাজার হাজার মানুষ। ছিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়, সত্যজিৎ রায় ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইন্সটিটিউডের ছাত্রছাত্রীরাও। অপর্ণা সেন মনে করেন, তাঁর মতো আরও অনেকে এই আইনের প্রতিবাদ জানাচ্ছে। সরকারের কাছে এই বার্তা পৌঁছনো দরকার। তাই আজ তাঁরা পথে নেমেছেন। তার উপর জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের উপর যে লাঠিচার্জ করেছে দিল্লি পুলিশ, তা অত্যন্ত নিন্দনীয়। তারও প্রতিবাদ জানাচ্ছেন তাঁরা। কৌশিক সেন জানান, এই মিছিল শুধু CAA বা NRC’র বিরোধিতা করছে না। জামিয়া মিলিয়ার ছাত্রছাত্রীদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন তাঁরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *