Quarantine centre in mosque Kolkata

কলকাতায় ধর্মের উর্দ্ধে মানবিকতা, মসজিদে কোয়ারান্টাইন সেন্টার

কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ

কলকাতার এক ইমাম দেখালেন মানবিকতার মাহাত্ম্য (Quarantine centre in mosque)। খুশির ঈদ আসতে বেশি দেরি নেই। এই মুহূর্তে বাংলার সার্বিক অবস্থা ভালো নয়।

পবিত্র রমজান মাসে তৈরী হয়েছে ভাইরাসের বাড়তি চাপ। কলকাতা, সমগ্র দেশের সাথে তৃতীয় লকডাউনে বন্দি। এর মধ্যে কলকাতার এক ইমাম দেখালেন মানবিকতার মাহাত্ম্য। খুশির ঈদ আসতে বেশি দেরি নেই। এই মুহূর্তে বাংলার সার্বিক অবস্থা ভালো নয়। গার্ডেনরিচ এলাকার এক মসজিদে কোয়ারান্টাইন সেন্টার (Quarantine centre in mosque) করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। কলকাতা পৌর সংস্থার কর্মকর্তারা এখানেই একটি কোয়ারান্টাইন কেন্দ্র স্থাপনের জন্য জায়গা খুঁজছিল। সমাধানের পথ তৈরী হলো।

পুরসভার শাসক গোষ্ঠীকে এক মাসের সময় দিল হাইকোর্টআরও জানতে ক্লিক করুন …

প্রসিদ্ধ বেঙ্গলি বাজার মসজিদ:

আসলে কলকাতার জামিয়া মসজিদ গাউসিয়া, স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে প্রসিদ্ধ বেঙ্গলি বাজার মসজিদ নামে। এখানকার শ্রদ্ধেয় ইমাম মৌলানা কোয়ারি মহম্মদ মুসলিম রাজউই কলকাতা পুরসভার কাছে মসজিদে কোয়ারানটিন সেন্টার করার প্রস্তাব দিয়েছেন। মসজিদের ৬০০০ বর্গফুট এলাকা নিয়ে তৈরি পুরো চতুর্থ তলটি কোয়ারানটিন সেন্টারের দান করতে চেয়েছেন। এলাকার সকল বাসিন্দাদের মতামত নিয়ে, মসজিদে কোয়ারানটিন সেন্টার গড়ার প্রস্তাব তিনি দিয়েছেন বলে জানান।

পাড়ায় পাড়ায় ঘুরে লালারস সংগ্রহ করা এবং পরীক্ষা করছে কলকাতা পুরসভা – আরও জানতে ক্লিক করুন …

ইমামের প্রস্তাবে খুব খুশি কলকাতা:

এখানেই বাংলার ও কলকাতার সংস্কৃতি। ধর্মীয় আবেগের থেকে বেশি গুরুত্ব পায় মানবিকতা। রবিঠাকুর আর নজরুলের মানব প্রেমের মানসিকতা এখানে প্রবল ভাবে বিরাজমান। এই সময় প্রশাসনের কাছে কম পড়ছে কোয়ারানটিন সেন্টার। এই পরিস্থিতিতে ইমামের প্রস্তাবে খুব খুশি কলকাতা পুরসভা। অনেকগুলি মানুষের সমস্যা মোকাবিলা করা সম্ভব হবে। এই সিদ্ধান্ত গোটা দেশের কাছে এক অন্য নজির হতে চলেছে। আর এভাবেই মারণ ভাইরাসকে ঠেকানো সম্ভব হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *