Demonetization of Rs 2000 Note Rumor

Rs 2000 Note Rumor: ₹২০০০-এর নোট বাতিল হতে চলেছে

কলকাতা

₹২০০০-এর নোট নিয়ে জল্পনার কোনও শেষ নেই। বছর শেষে নতুন জল্পনা, বিমুদ্রাকরণ হতে চলেছে ₹২০০০-এর নোটের (Rs 2000 Note Rumor)!

নোটবন্দির পর কেটে গিয়েছে ৩ বছর, তবে কি অবশেষে কালো টাকার সমাধান হলো ? এই প্রশ্ন সবার মুখে । কংগ্রেস সরকারের আর্থিক কেলেঙ্কারির কারণে অতিষ্ট হয়ে দেশবাসী মোদী সরকারকে ক্ষমতায় আনে, সংখ্যাগরিষ্ঠতার সঙ্গে । আশা ছিল একটাই স্বচ্ছ অর্থনীতি আর বিদেশে সঞ্চিত কালো টাকা দেশে ফেরত আনা, কিন্তু এই ছ-বছরেও মোদী সরকার ১০% -ও এগোতে পারেনি এ বিষয়ে। দেশবাসী কি এখনো আশা করে আছেন ? নোটবন্দির পর এলো নতুন ₹২০০০-এর নোট । আর সেই ₹২০০০-এর নোট নিয়ে জল্পনার কোনও শেষ নেই। বছর শেষে নতুন জল্পনা, বিমুদ্রাকরণ হতে চলেছে ₹২০০০-এর নোটের (Rs 2000 Note Rumor)! সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে একাধিক পোস্টের জেরে পিংক নোট নিয়ে কানাঘুষো কম নেই। সূত্রের খবর, কোষাধ্যক্ষদের ₹২০০০-এর নোট গ্রহণ করতে বারণ করেছে বেশ কিছু ছোট ছোট সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা।

এই মহা-জল্পনার পিছনের কারণ, বেঙ্গালুরুর এক সংস্থার নিজস্ব নির্দেশিকা। মিডিয়ায় ভাইরাল এই নির্দেশিকা অনুযায়ী, গ্রাহকদের থেকে ₹২০০০-এর নোট নিতে’ বারণ করা হয়েছে। এমনকী, বর্তমানে ‘₹২০০০-এর নোট নগদ ব্যালান্সে থাকলে, তা দ্রুত ব্যাংকে জমা দিতে’ও বলা হয়েছে।

Demonetization of Rs 2000 Note Rumor
Demonetization of Rs 2000 Note Rumor

কি সমস্যা এই হাই কারেন্সী ভালুয়ের, তা কিন্তু সবাই জানে, এতদসত্ত্বেও সরকারের মুখে কুলুপ। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, অর্থমন্ত্রী সীতারমনও নিজে রাজ্যসভাকে জানিয়েছিলেন, কালো টাকা মজুত করতে ₹২০০০-এর নোটকে কাজে লাগাচ্ছে এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা। এরপরই খবর ছড়িয়ে যায়, ₹২০০০-এর নোট ধীরে ধীরে বাজার থেকে তুলে নিতে চাইছে রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া। যদিও নোট বাতিলের কোনও সরকারি নির্দেশিকা জারি করা হয়নি এখনো পর্যন্ত।

২০১৬-র ৮ নভেম্বর পুরনো ₹৫০০ ও ₹১০০০-এর নোট বাতিল করেছিল মোদী সরকার। আর বাজারে আসে নতুন ₹২০০ ও ₹২০০০-এর নোট । ₹১০০০ এর নোট বাতিল করে কেন ₹২০০০-এর নোট, সে প্রসঙ্গে মোদী সরকারের যুক্তি ভিত্তিহীন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *