Deputy election commissioner Sudeep Jain visit Bengal for election preparation

রাজ্যে কেন্দ্রীয় উপ মুখ্যনির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈন

কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ

রাজ্যে পুলিশ প্রশাসনের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক সারতে এলেন ডেপুটি নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈন (Sudeep Jain visits Bengal)।

নিজস্ব সংবাদদাতা: বাংলার বিধানসভা নির্বাচনের ঢাক বেজে গেছে। নেতা নেত্রীদের দৌড় শুরু হয়ে গেছে। এর মধ্যে চাপ বেড়েছে নির্বাচনী প্রক্রিয়ার। সংক্রমণের আবহে নির্বাচন একটু সমস্যার। তাই নির্বাচনের আগে রাজ্যে পুলিশ প্রশাসনের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক সারতে এলেন ডেপুটি নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈন (Sudeep Jain visits Bengal)। তার সাথে আছেন নির্বাচন কমিশনের অন্যান্য আধিকারিকরা। আজ বৃহস্পতিবার জেলাশাসক, পুলিশ সুপার ও পুলিশ কমিশনারেদর সঙ্গে বৈঠক করবেন ডেপুটি নির্বাচন কমিশনার। এই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে থাকবেন রাজ্যের মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, স্বাস্থ্যসচিব ও রাজ্য পুলিশের ডিজি।

Deputy election commissioner Sudeep Jain visit Bengal for election preparation
Deputy election commissioner Sudeep Jain visits Bengal for election preparation

আসলে রাজ্যের আসন্ন নির্বাচন নিয়ে বৈঠকে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হতে চলেছে। আগামিকাল শুক্রবার, নির্বাচন কমিশনের প্রতিনিধিরা মালদহ ও জলপাইগুড়ি জেলাতে যাবেন। প্রেসিডেন্সি রেঞ্জ, বর্ধমান ও মেদিনীপুরের জেলাশাসক ও পুলিশ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক হতে পারে সুদীপ জৈনের। গত নির্বাচনে যেসব বুথে ঝামেলা ও সমস্যা হয়েছিল সেগুলি সম্পর্কে খোঁজ নেবেন উপ মুখ্যনির্বাচন কমিশনার।

এই মুহূর্তে রাজ্যে ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজ চলছে। রাজ্যে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি জানিয়েছে, বর্তমান ভোটার তালিকায় প্রচুর গরমিল আছে। বিহার বিধানসভা নির্বাচনের মতো এখানেও বুথের সংখ্যা বাড়ানো হতে পারে।

[ আরো পড়ুন ] রাজ্যের ২৫ জন বিজেপি নেতার নিরাপত্তা ! পর্যালোচনা MHA’র

আগামীকাল শুক্রবার মালদা, মুর্শিদাবাদ ও দুই দিনাজপুরের জেলাশাসক, শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, দার্জিলিং, কালিম্পঙের প্রশাসনিক কর্তা ও পুলিশ প্রশাসনের কর্তাদের সঙ্গেও বৈঠক করবেন সুদীপ জৈন। এই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হবে উত্তরবঙ্গে। গত মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনের কাছে যান বিজেপির চার সদস্যের এক প্রতিনিধি দল। নির্বাচনের আগে রাজ্য জুড়ে হিংসার ঘটনার কারনে রাজ্যে দ্রুত কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের আবেদন জানান বিজেপি প্রতিনিধিরা। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারি কর্মচারি ফেডারেশনের কর্মীদের ডিউটি না দেওয়ার আবেদন জানান রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারি কর্মচারি ফেডারেশনের কর্মীরা নিরপেক্ষ নন বলে তিনি মনে করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *