Digital Puja at Sabarimala Temple During COVID-19 Lockdown

Digital Puja: শবরীমালা মন্দির আনছে ডিজিটাল পুজো

কলকাতা

এবার ভক্তদের জন্য আনছে অতি প্রয়োজনের ডিজিটাল পুজো (Digital Puja)। নেই বিনা পরিশ্রমে বাড়তি উপার্জন। তাই আধুনিকতায় মন দিলো শবরীমালা …

বিতর্কের অধ্যায় অনেকটা থেমে গেছে। যদিও সুপ্রিম দাওয়াই মেনে সব কিছু প্রাচীন রীতি সাবলীল ভাবে চালু হয় নি। সেই জটিল সমীকরণ এখন আবছা হয়ে গেছে। নারীদের প্রবেশের থেকে প্রধান হয়ে উঠেছে প্রণামী। করোনার ফলে মন্দিরে ভক্ত সমাবেশ নেই। নেই বিনা পরিশ্রমে বাড়তি উপার্জন। তাই আধুনিকতায় মন দিলো শবরীমালা মন্দির। দক্ষিণ ভারতের বহু মন্দিরের যাবতীয় কার্যকলাপ পরিচালনা করে The Travancore Devaswom Board । তারা এবার ভক্তদের জন্য আনছে অতি প্রয়োজনের ডিজিটাল পুজো (Digital Puja)।

ওড়িশাতে লকডাউন ৩০শে এপ্রিল পর্যন্ত – আরও জানতে ক্লিক করুন …

তারা এবার তাদের সাড়ে তিন হাজার কর্মীদের জানিয়ে দিয়েছে, আগামী মাসে মাইনে অনেকটাই কমতে পারে। কারণ, মন্দির কর্তৃপক্ষের হাতে আলাদা করে বড় রকমের ফান্ড নেই। তাছাড়া মন্দিরের সঞ্চিত অর্থ দিয়ে বেশিদিন চালানো সম্ভব নয়। মন্দিরের প্রতিদিনের আলাদা খরচ কম নয়। সেই কারণেই কেরালার শবরীমালা মন্দির কর্তৃপক্ষ অন্য পথে প্রণামী অর্জনের চেষ্টা চালাবে বলে ঠিক করেছে।

ওষুধ পেতেই আমেরিকা, ব্রাজিলের প্রশংসার স্তুতি – আরও জানতে ক্লিক করুন …

আগামী ১৪ই এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে যেকোনো মূহুর্তে এই লকডাউনের মেয়াদ বাড়তে পারে। ফলে দীর্ঘদিন আয়ের পথ বন্ধ থাকবে বলে মনে করছে সবরীমালা মন্দির কর্তৃপক্ষ। কারণ, লকডাউনের সময় কেউ মন্দিরে পুজো দিতে পারবেন না। ফলে ভরসার প্রণামীর দেখা মিলবে না। তাই অনলাইনে পুজো দেওয়ার পথ বের করেছে মন্দির কর্তৃপক্ষ। জানা যাচ্ছে , যেকোনো ধরণের অর্চনা, গণপতি হোমাম ও নিরঞ্জনমের মতো পুজোর আচার যে কেউ বাড়িতে বসে করা যাবে। তবে এক্ষেত্রে অনলাইনে পুজোর জন্য প্রণামী সংগ্রহ করা হবে ভক্তদের থেকে। ঋতুমতী নারী না ঢুকুক,
অনলাইন তো আসুক!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *