Fire at North Bengal Medical College Kills One Patient

North Bengal Medical College: আগুনে মৃত এক রোগী

কলকাতা

আজ ভোর পাঁচটাতে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ (North Bengal Medical College) হাসপাতালের সিসিইউ বিভাগে আগুন লাগে ।

হাসপাতাল থেকে আগুনের বিপদ কিছুতেই কাটছে না। আজ উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ (North Bengal Medical College) হাসপাতালের সিসিইউ বিভাগে আগুন লাগে । দ্রুত রোগীদের বের করার সময় মৃত্যু হয় একজনের। তবে স্থানীয় দমকলের দুটি ইঞ্জিনের চেষ্টায় সেই বিপদের আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় রোগীর আত্মীয়দের মধ্যে। আজ ভোর পাঁচটাতে আগুন লাগে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সিসিইউ বিভাগে। আগুন লাগার সময় সেখানে ভর্তি ছিলেন মোট ১০ জন রোগী। হাসপাতাল কর্মীদের সঙ্গে দ্রুত তাঁদের সরানোর কাজে হাত লাগান রোগীর আত্মীয়রা। সেই সময়ই যে রোগীর মৃত্যু হয়, তার নাম সাবেরা খাতুন। স্বাস্থ্য কর্মীরা রোগীদের সিসিইউ থেকে বের করার সময় লাইফ সাপোর্ট খুলতে হয়েছিল, সেই কারণেই ওই মহিলার মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

খুব সকালে আগুন লাগান আঁচ পেতেই, প্রাণ বাঁচাতে তাঁদের অনেকে নিজে নিজেই বেড থেকে ওঠার চেষ্টা করেন৷ তৎপর হয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও৷ সঙ্গে সঙ্গে রোগীদের অন্যত্র স্থানান্তরিত করা হয়৷ এবং এই হুড়োহুড়ির সময়ই মৃত্যু হয় ফতেমা খাতুন নামের ওই রোগীর৷ তাঁর বাড়ি ইসলামপুরে৷ রোগীর পরিজনের অভিযোগ, আগুনের জেরেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর৷ যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ৷ তাঁদের পালটা দাবি, আতঙ্কের জেরে মৃত্যু হয়েছে ফতেমা খাতুনের৷ কারণ তাঁর আগে আগুনে লাগার কোনও চিহ্ন নেই৷ আগুনে সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে গিয়েছে সিসিইউ। শর্ট সার্কিটের কারণে একটি ভেন্টিলেটর থেকে আগুন লাগে বলে মনে করা হচ্ছে। ওই ঘরে অক্সিজেন থাকায় আগুন সহজেই বড় আকার নেয়। কালো ধোঁয়ায় ভরে যায় ঘর।

তাড়াতাড়ি বাকি রোগীদের স্থানীয় নার্সিংহোমে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। খবর পেয়ে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে সিসিইউ পরিদর্শন করেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। আগুন লাগার খবর পেয়ে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে যান শিলিগুড়ির বিধায়ক তথা মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। তিনি হাসপাতালের সুপারের সাথে দীর্ঘক্ষন আলোচনা করেন। মেয়র বলেন অগ্নিনির্বাপণ ব্যাবস্থা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। সেখানে ২টি দমকল ঘণ্টা দেড়েকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ভেন্টিলেটরের কম্প্রেসর থেকে আগুন লাগে, প্রাথমিক তদন্তে অনুমান দমকলের। এই প্রসঙ্গে উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী গৌতম দেব জানান, “হাসপাতালে পর্যাপ্ত অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা রয়েছে। তবে কীভাবে আগুন লাগল, তা খতিয়ে দেখা হবে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *