Imran Khan in UN Against India with Rahul Gandhi's Remark

Imran Khan in UN: রাহুলের মন্তব্যকে হাতিয়ার করে

কলকাতা

কংগ্রেসের রাহুল গান্ধীর মন্তব্যকে হাতিয়ার করে রাষ্ট্রসংঘে ভারতের বিরুদ্ধে লিখিত বিবৃতি জমা দিল ইমরানের (Imran Khan in UN) পাকিস্তান।

পাকিস্তান এবার মাঠে নেমে ভারতের রাহুলকে নিলো। ভারতে থেকে ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলতে তিনি বেশ প্রসিদ্ধ। এবার তার বালখিল্যতার মাশুল গুনতে হবে দেশকে। কংগ্রেসের রাহুল গান্ধীর মন্তব্যকে হাতিয়ার করে রাষ্ট্রসংঘে ভারতের বিরুদ্ধে লিখিত বিবৃতি জমা দিল ইমরানের (Imran Khan in UN) পাকিস্তান। সেই বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ভারতের রাহুল বলেছেন, কাশ্মীরে ‘মানুষ মরছে’। পাকিস্তানের মানবাধিকার মন্ত্রী শিরিন মাজারি মঙ্গলবার রাষ্ট্রসংঘের একাধিক আধিকারিকের হাতে ওই লিখিত বিবৃতি তুলে দিয়েছেন।

কাশ্মীর নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে অনেকটাই কোনঠাসা ছিল পাকিস্তান। কিন্তু রাহুলকে পাশে পেয়ে রাষ্ট্রসংঘে কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তান নেমেছে। আর সেই নালিশে আছে রাহুল গান্ধীর নাম। কাশ্মীর ইস্যুতে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনে পাকিস্তান যে নালিশ করেছে, তাতে রাহুল গান্ধীর মন্তব্য ব্যবহার করা হয়েছে। গত শনিবার ১২ জন বিরোধী নেতার সঙ্গে কাশ্মীর গিয়েছিলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি। পরিস্থিতি বুঝে তাদের কাশ্মীর উপত্যকায় ঢুকতে দেওয়া হয়নি। তখনই রাহুল গান্ধী বলেন, কাশ্মীরের পরিস্থিতি ঠিক নয়। রাহুলের সেই ছেলেমানুষের মন্তব্য ব্যবহার করেই রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনে নালিশ করেছে পাকিস্তান।

পাক নালিশে বলা হয়েছে, রাহুল গান্ধীও পাকিস্তানের অবস্থানকে সমর্থন করেন স্পষ্ট ভাষায়। ইসলামাবাদের এই পদক্ষেপে চরম ক্ষুব্ধ দেশের জাতীয় কংগ্রেস। বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘কাশ্মীরে হিংসার ঘটনা নিজেদের বিবৃতিতে স্বীকার করেছেন ভারতের মূলধারার রাজনীতিবিদরা। যেমন, কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেছেন, জম্মু-কাশ্মীরে মানুষ মরছে। একের পর এক ভুল পদক্ষেপ করা হচ্ছে সেখানে।’ পাকিস্তানের বিবৃতিতে পিডিপি নেত্রী মেহেবুবা মুফতি ও ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লার নামও আছে । পাকিস্তানের বিবৃতিতে চরম অস্বস্তিতে পড়ে কংগ্রেস।

অবস্থা বুঝে একটা ঝটিতি বিবৃতি প্রকাশ করা হয় কংগ্রেস দলের তরফে। তাতে বলে হয়েছে, ‘জম্মু – কাশ্মীর নিয়ে রাহুল গান্ধীর বক্তব্য টেনে ভারতের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসংঘে বিবৃতি জমা দিয়েছে পাকিস্তান। নিজেদের মিথ্যে কথাকে সত্যি প্রমাণ করতে রাহুল গান্ধীকে এর মধ্যে টেনে এনেছে ইমরান। ভারতে জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখ অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ ছিল, আছে, থাকবে। এই বিষয়ে কারও কোনও সন্দেহ থাকা উচিত নয়। পাকিস্তানের কোনও দানবিক দালালি এই সত্যকে বদলাতে পারবে না।’ আসলে পাকিস্তান গোটা বিশ্বে সন্ত্রাসবাদের সব থেকে বড় সমর্থক, এটা সকলেই জানছে তাদের আচরণে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *