Indian Govt Brings New Lockdown Guidelines Today

New Lockdown Guidelines: লকডাউনের নতুন নির্দেশিকা

কলকাতা

আজ বুধবার সকালে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর নতুন নির্দেশিকা (New Lockdown Guidelines) জারি করা হয়। কেন্দ্রের তরফে জারি নির্দেশিকায় বলা হয়েছে …

পূর্বের নির্ধারিত ২১দিনের লকডাউন শেষ। নতুন করে আবার ৩রা মে পর্যন্ত গৃহবন্দীর অধ্যায় শুরু হয়েছে। গত মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, ২০শে এপ্রিলের পর শর্তসাপেক্ষে ছাড় মিলতে পারে বেশ কিছু ক্ষেত্রে। আজ বুধবার সকালে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর নতুন নির্দেশিকা (New Lockdown Guidelines) জারি করা হয়। কেন্দ্রের তরফে জারি নির্দেশিকায় বলা হয়েছে,”সমাজের যে যে ক্ষেত্রগুলি গ্রামীণ অর্থনীতি, কৃষিকাজ এবং চাকরি তৈরির ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সেইসব ক্ষেত্রকে ছাড়ের আওতায় আনা হচ্ছে। তবে এই সব ক্ষেত্রেই করোনা সম্পর্কিত নিয়মাবলী কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।” কাজের জায়গায় একটা শিফটের সঙ্গে অন্য শিফটের অন্তত ১ ঘণ্টা পার্থক্য থাকতে হবে। লাঞ্চের সময়েও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

লকডাউন ভাঙা নিয়ে চিঠি – আরও জানতে ক্লিক করুন …

তবে এবার লকডাউনে ছাড় মিলবে চাষবাস, তথ্য-প্রযুক্তি, ই-কমার্স ক্ষেত্রে। আন্তঃরাজ্য পরিবহনেও নিষেধাজ্ঞা থাকবে না আগামী ২০শে এপ্রিলের পর থেকে। আজকের নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, “মানুষের কষ্ট লাঘব করার জন্য এই সিদ্ধান্ত।”। তবে লকডাউনের দেশের হটস্পটে অনুমতি নেই এই ধরনের কার্যকলাপে। কৃষিকাজ অর্থাৎ ফসল ফলানো থেকে শুরু করে সবজি মান্ডিতে পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে সাধারণ অঞ্চলগুলিতে ছাড় দিচ্ছে সরকার। শুধুমাত্র হটস্পট গুলিতেই জারি থাকছে কড়া নিয়ম। আসলে গ্রামের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতেই এমন সিদ্ধান্ত। গ্রামীণ শিল্প, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ, রাস্তা তৈরি ক্ষেত্রে শিথিল করা হয়েছে লকডাউনের নিয়ম।

শবরীমালা মন্দির আনছে ডিজিটাল পুজো – আরও জানতে ক্লিক করুন …

রাস্তায় বেরলেই মুখ ঢাকতে হবে। কাজের জায়গাতেও যেন কোনওভাবেই নাক-মুখ খোলা না থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। নির্দেশিকায় আরও বলা হয়েছে, ‘গ্রামীণ অর্থনীতি, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ-সহ গ্রামীণ এলাকাভিত্তিক শিল্প, সড়ক নির্মাণ, সেচ প্রকল্প, গ্রামীণ এলাকায় বহুতল ও শিল্পের প্রকল্প, গ্রামীণ কমন সারভিস সেন্টারের কাজকর্ম শুরুতে অনুমোদন দেওয়া হচ্ছে।’ প্রকাশ্যে থুতু ফেলা দন্ডনীয় অপরাধ বলে বিবেচনা করা হবে। মদ, গুটখা কিংবা তামাক জাতীয় দ্রব্য বিক্রি করার ক্ষেত্রে কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। সরকারি ও বেসরকারি ক্ষেত্রের কর্মচারীদের আরোগ্য সেতু অ্যাপ ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *