Interpol Issues Red Corner Notice Against Nehal Modi in PNB Scam

PNB Scam: নীরবের ভাই নেহাল মোদীর বিরুদ্ধে রেড কর্নার জারি

কলকাতা

পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে ১৩ হাজার কোটি টাকার কেলেঙ্কারিতে (PNB Scam) এবার নীরব মোদীর ভাই নেহাল মোদীর নামে রেড কর্নার নোটিস জারি করল ইন্টারপোল।

একে একে জালে পড়ছে মস্ত রাঘব-বোয়ালরা। দেশের বাইরে গিয়ে ঠিকানা বদলেও নিস্তার নেই। আর তাই পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে (PNB Scam) ১৩ হাজার কোটি টাকার কেলেঙ্কারিতে এবার নীরব মোদীর ভাই নেহাল মোদীর নামে রেড কর্নার নোটিস জারি করল ইন্টারপোল। দেশের ব্যাঙ্ক প্রতারণা মামলায় হীরে ব্যবসায়ী নীরবের পাশাপাশি নেহালও জড়িত বলে অভিযোগ করেছে এই প্রসিদ্ধ তদন্তকারী সংস্থা। বেলজিয়ামের বাসিন্দা বছর চল্লিশের নেহাল বর্তমানে আমেরিকায় আত্মগোপন করে আছেন বলে জানা গেছে। ১৪০০ কোটি টাকার কেলেঙ্কারির প্রধান অভিযুক্ত নীরব মোদীর ভাই তিনি। গোয়েন্দাদের দাবি, এই মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আছেন এই কুখ্যাত নেহাল।

নেহালের বিরুদ্ধে ভুয়ো নথি তৈরি করা এবং তথ্য প্রমাণ লোপাট করার অভিযোগ রয়েছে। তদন্তে নেমে ইডির তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, নীরব মোদীর সংস্থায় নকল ডিরেক্টর বানিয়ে, কর্মচারীদের ভয় দেখিয়ে ভুয়ো নথিতে সই করিয়ে নেওয়ার মতো গুরুতর অপরাধে যুক্ত রয়েছেন নেহাল। গত ১৪ই অগস্ট, নেহালের প্রত্যার্পণ নিয়ে মামলা ওঠে মুম্বইয়ের বিশেষ আদালতে। তাঁকে দেশে ফেরানোর আর্জি জানান ইডির আইনজীবী। এরপরই আদালতের চূড়ান্ত নির্দেশ মুখবন্ধ খামে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে বিদেশমন্ত্রকের কাছে। ব্যাঙ্ক প্রতারণার ঘটনায় নীরবকে সাহায্য করেছিলেন নেহাল, এমন অভিযোগই করেছে ইডি। তদন্তকারী সংস্থার তরফে দাবি করা হয়েছে, গোটা ঘটনা জেনে বুঝেই নীরবকে সাহায্য করেছিলেন নেহাল।

এই মামলার মূল অভিযুক্ত নীরব মোদী রয়েছেন লন্ডনের হার ম্যাজেস্টির জেলে। তাঁর প্রত্যার্পণের জন্য সব রকমে আইনি প্রক্রিয়া চালিয়ে যাচ্ছেন ইডি ও সিবিআইয়ের তদন্তকারীরা। এই মামলার আরও এক অভিযুক্ত তথা নীরব মোদীর মামা মেহুল চোক্সী অ্যান্টিগুয়া নাগরিকত্ব নিয়ে সেখানেই স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। দুবাই ও হংকংয়ের নকল ডিরেক্টরদের সেলফোন নষ্ট করেছেন বলে অভিযোগ নেহালের বিরুদ্ধে। বিদেশে ১৫টিরও বেশি ডামি কোম্পানি তৈরি করেছিলেন নীরব মোদী। নীরবের দুবাইয়ের সংস্থা থেকে প্রায় ৫০ কেজি সোনা পাচার করেছেন নেহাল। পাশাপাশি হংকং থেকে ১৫০ বাক্স মুক্তো ও নগদ টাকা পাচার করে নীরবের ভাই। ইডির আরও দাবি, ২টি সংস্থার ডিরেক্টর পদে আছেন নেহাল। নীরবের ডামি কোম্পানি থেকে ৩৩৫.৯৫ কোটি টাকা পেয়েছে নেহালের সংস্থা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *