Journalist Killed in UP for Protesting Against Heap of Garbage

Journalist Killed in UP: আবর্জনার প্রতিবাদ করায় হত্যা

কলকাতা

সাংবাদিক আশিস জানওয়ানি (Journalist Killed in UP) ও তাঁর ভাইকে দিনের আলোয় গুলি করে হত্যা করল একদল লোকাল দুষ্কৃতী।

সাংবাদিক হত্যা (Journalist Killed in UP) নতুন কিছু নয়, বিশেষ করে উত্তরপ্রদেশের ময়দানে । আবার ঘটলো একই ঘটনা, উত্তরপ্রদেশের এক প্রতিষ্ঠিত পত্রিকার সিনিয়র সাংবাদিক আশিস জানওয়ানি ও তাঁর ভাইকে দিনের আলোয় গুলি করে হত্যা করল একদল লোকাল দুষ্কৃতী। জানা যাচ্ছে, বহুদিন ধরেই আশিষকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছিল লোকাল এলাকার মাফিয়ারা। পেশায় সাংবাদিক হওয়াই আশিস বিষয়টাকে অতটা গুরুত্ব দিয়ে দেখেনি ।

সূত্রের খবর, সাংবাদিক আশিস জানওয়ানি সাহারানপুর -এ যত্রতত্র ময়লা ফেলা নিয়ে প্রতিবাদ করেন । বেশ কিছুদিন আগে বিবাদেও জড়িয়ে পড়েন ওই একই দুষ্কৃতী দলের সঙ্গে। পুলিশে খবর দিলেও কোনও লাভ হয়নি, কারণ পুলিশ আবর্জনা পরিষ্কারের বিষয়ে কোনো নাক গলায় না বলে পাশ কাটিয়ে যায় । ময়লা বা আবর্জনা পরিষ্কার করবার দায়িত্ব পঞ্চায়েত বা পৌরসভার । আর পুলিশের কাজ সমাজের ময়লা অর্থাৎ সমাজবিরোধীদের সমাজ থেকে সাফ করা । আর ঠিক সেই কারণেই পুলিশ আশিসের ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করতে চায়নি ।

আজ দিনদুপুরে উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুরের মাধবনগর এলাকায়, সাংবাদিক আশিস জানওয়ানির বাড়িতে সরাসরি হামলা চালায় ওই একই মাফিয়াদের দল । প্রত্যক্ষদর্শীদের মোট অনুসারে, তিনজন সশস্ত্র দুষ্কৃতী বাইকে করে আশিসের বাড়িতে আসে । দুষ্কৃতীরা মুখ বাধা অবস্থায় আশিসের বাড়িতে ঢোকে। তাদের সঙ্গে থাকা বন্দুক থেক এলোপাথাড়ি গুলি ছুড়তে শুরু করে তারা। ঘটনাস্থলেই মারা যান আশিসের ভাই। দুষ্কৃতীরা পালিয়ে গেলে আশিসের পরিজনেরা তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর।

সাংবাদিক আশিস জানওয়ানি ও তাঁর ভাই-ই তাদের পরিবারের একমাত্র রোজগেরে সদস্য ছিলেন। তাদের বাড়িতে রয়েছেন আশিসের বৃদ্ধা মা ও গর্ভবতী স্ত্রী। খুনের সংবাদ পেয়েই ঘটনাস্থলে বিশাল বাহিনী নিয়ে পৌঁছন উত্তরপ্রদেশের ডিআইজি উপেন্দ্র আগরওয়াল। কিন্তু ততক্ষনে দুষ্কৃতীরা মাধবনগর এলাকা ছেড়ে পলায়ন করেছে । অপরাধীদের খোঁজে গোটা এলাকায় এখনো তল্লাশি চালানো হচ্ছে। কে এই হত্যার জন্য দায়ী তা প্রায় সকলেরই জানা, কিন্তু কেও মুখ খুলতে নারাজ । এলাকাবাসীরা ভয়ে সন্ত্রস্ত ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *