Mukul Roy Gets Relief For 5 Weeks From Court in Labpur Case

Labpur Case: মুকুলকে ৫ সপ্তাহ ধরতে পারবে না পুলিশ

কলকাতা

সাময়িক স্বস্তি মিললো মুকুল রায়ের। লাভপুর মামলায় (Labpur Case) একটু সমস্যার মধ্যে ছিলেন তিনি। গত ৮ই ডিসেম্বর বোলপুর আদালত …

সাময়িক স্বস্তি মিললো মুকুল রায়ের। লাভপুর মামলায় (Labpur Case) একটু সমস্যার মধ্যে ছিলেন তিনি। গত ৮ই ডিসেম্বর বোলপুর আদালত গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে বিজেপি নেতা মুকুল রায় ও মণিরুল শেখের নামে। যার জেরে কলকাতা হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেছিলেন মুকুল রায়। যদিও তা খারিজ করে দিয়েছিল আদালত। আজ মঙ্গলবার কলকাতা হাইকোর্টের তরফে বিচারপতি জয়মাল্য বাগচীর ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়ে দিলে, আগামী ৫ সপ্তাহের জন্য বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে গ্রেফতার করা যাবে না।

২০১০ সালে লাভপুরে তিন সিপিএম সমর্থক ভাইকে খুনের ঘটনায় কিছুদিন আগে অতিরিক্ত চার্জশিটে মুকুল রায়ের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। মামলায় প্রথম থেকেই অভিযুক্তের তালিকায় রয়েছেন প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক তথা পরবর্তীতে বিজেপিতে যোগ দেওয়া মণিরুল ইসলাম। তৃণমূলের একদা সেকেন্ড ইন কমান্ডের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়। অনেক সময় পার হয়েছে ও বহু কান্ড এর মাঝে ঘটেছে। তবে এখন আদালতে বিষয়টি পর্যালোচনা চলছে। এই সময়ের মধ্যে মুকুল রায় লাভপুর, বোলপুর থানা এলাকায় প্রবেশ করতে পারবেন না। যদিও পলিশ তাঁকে ডাকলে তদন্তে সহযোগিতা করতে হবে।

কলকাতা উচ্চ আদালতের নির্দেশে নতুন তদন্তে নেমে চূড়ান্ত গোপনীয়তায় সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট জমা দেয় বীরভূম পুলিশ। সেই চার্জশিটে উল্লেখযোগ্য ভাবেই মুকুল রায় ও মণিরুল শেখের নাম উঠে আসে। লাভপুরে ২০১০ সালের জুনে একই পরিবারের তিন ভাই খুন হয়েছিলেন ৷ পুলিশের পক্ষ থেকে তদন্তকারী আধিকারিক সর্বজিৎ বসু বোলপুর আদালতে সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট জমা দেন। আর সেই খুনের মামলায় মুকুল রায় ও মণিরুল ইসলামকে চার্জশিট দেওয়া হল ৷ এই চার্জশিটে এই দুই বিজেপি নেতা ছাড়াও রয়েছে মোট ২৩ জনের নাম ৷ এখন কিছুদিন আদালতের লক্ষণ গন্ডির মধ্যে থাকলেন মুকুলবাবু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *