Raidighi MLA Debasree Roy May Join BJP

Debasree Roy May Join BJP: শোভনের সম্মতি

কলকাতা

রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক তথা অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় ক্রমশ পদ্ম শিবিরের দিকে পা মেলেছেন (Debasree Roy May Join BJP) ।

রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক তথা অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় ক্রমশ পদ্ম শিবিরের দিকে পা মেলেছেন (Debasree Roy May Join BJP) । তিঁনি দলে যোগ দিলে বিজেপিতে না থাকার আপত্তি ছিল শোভন-বৈশাখীর। গত ১৪ই আগস্ট, দলে যোগ দেবার ঠিক আগে, কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভনবাবু এবং বৈশাখী ব্যানার্জী এই ঘোষণা চমকে দিয়েছিল দিল্লির সদর দফতরকে। আসলে সেদিনই দরজার ফাঁক দিয়ে একঝলক দেখা গিয়েছিল দেবশ্রী রায়কে।

দেশ ভেবেছিলো, শোভনের সঙ্গেই গেরুয়া শিবিরে যোগ দেবেন দেবশ্রী। কিন্তু যোগ দিয়েছিলেন শোভনবাবুর সঙ্গে বৈশাখী। দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রীর সঙ্গে শোভনবাবুর সু-সম্পর্ক ছিল। কিন্তু রাজনীতিতে যে কোন সু-সম্পর্কই কু-সম্পর্কে পরিণত হতে বেশি সময় লাগে না। তখনই, দেবশ্রী-শোভনের সম্পর্কেও ফাটল ধরে।

কিন্তু বুধবার জানা গেল, পরিষ্কার হয়ে উঠছে দেবশ্রী রায়ের বিজেপিতে যোগদানের সম্ভাবনা। সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই কিন্তু বদলে গেল ছবি। দেবশ্রী রায়কে বিজেপিতে স্বাগত জানানোর বিষয়ে আপত্তি করা যাবে না — এই বার্তা শোভন চট্টোপাধ্যায়কে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে বিজেপি সূত্রে জানা যাচ্ছে। শোভনবাবুও সেই বার্তার বিরোধিতা করেননি। বিজেপি দফতরে সাংবাদিক সম্মেলনে বৈশাখীদেবী বলেন যে, ‘‘আমি গোঁসা করে ঘরে বসে থাকলে শোভনদার সংবর্ধনা ম্লান হয়ে যেত। তাই এসেছি।’’

সেই সাংবাদিক সম্মেলন শেষ হওয়ার পরেই দেবশ্রীর ব্যাপারে নিজেদের সিদ্ধান্তের কথা শোভনকে জানান দিলীপ ঘোষ। তৃণমূলকে দুর্বল করে দেওয়াই এখন বিজেপির লক্ষ্য। দেবশ্রী রায়ের মতো দু’বারের বিধায়ককে দলে নেওয়া হলে তৃণমূলকে ধাক্কা দেওয়া যাবে বলে বিজেপি মনে করছেন দলের রাজ্য সভাপতি। বিচক্ষণ শোভন চট্টোপাধ্যায়ও আর সঙ্ঘাতে যাননি। তবে বিষয়টা শুধু শোভনের ব্যাপারে সীমাবদ্ধ থাকবে না বলেও শোনা যায়। দেবশ্রী রায়কে খুব তাড়াতাড়িই বিজেপিতে শামিল করা হবে এবং সেই যোগদানটা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতেই হবে বলে শোনা যাচ্ছে।

খুব শীঘ্রই শোভন ও দেবশ্রীর বৈঠক হতে চলেছে বলেও জল্পনা। সব জেনে বৈশাখীদেবী জানান, ‘‘আমিও শুনেছি যে দেবশ্রী রায়কে দলে নেওয়ার বিষয়ে কোনও একটা বার্তা শোভন চট্টোপাধ্যায়কে দেওয়া হয়েছে। তবে সবটাই শোনা কথা। দলের তরফে কেউই আমাকে এ বিষয়ে কিছু জানাননি। আমার সঙ্গে এ নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথাও নয়। কারণ কাকে দলে নেবেন, কাকে নেবেন না, এটা বিজেপি নেতৃত্বই স্থির করবেন। আমার এ নিয়ে কিছু বলার নেই।’’ এখন রাজ্য বিজেপি ঠিক করবে কাকে তাদের বেশি প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *