SC on Pollution Caused By Haryana and Punjab

SC on Pollution: ভর্ৎসনার মুখে পাঞ্জাব-হরিয়ানার মুখ্যসচিবরা

কলকাতা

পঞ্জাব ও হরিয়ানা সরকারের ব্যর্থতা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের (SC on Pollution) নজিরবিহীন ভর্ৎসনার মুখে পড়লেন দুই রাজ্যের মুখ্যসচিব।

ক্রমশ অস্বাস্থ্যকর হয়ে উঠেছে রাজধানী দিল্লির বাতাস। কাজের প্রয়োজনে ঘর থেকে প্রাণ হাতে নিয়ে বার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল জানিয়েছেন, দিল্লির বাতাস দূষিত হচ্ছে মূলত পার্শ্ববর্তী রাজ্যগুলিতে ফসলের খড়কুটো পোড়ানোর জন্যে। পরিবেশবিদরাও সহমত পোষণ করেছেন। দূষণের আঁতুরঘর সামলাতে ব্যর্থ হয়েছে পাঞ্জাব ও হরিয়ানা। পঞ্জাব ও হরিয়ানা সরকারের ব্যর্থতা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের
(SC on Pollution) নজিরবিহীন ভর্ৎসনার মুখে পড়লেন দুই রাজ্যের মুখ্যসচিব। আদালতের নির্দেশ, আগামী সাত দিনের মধ্যে সমস্ত ফসলের গোড়া কৃষকদের কাছ থেকে কিনে নিতে হবে রাজ্যগুলিকে।

সামলাতে যত টাকা প্রয়োজন তা জোগাড় করতে হবে রাজ্যকে। ব্যর্থ হলে শাস্তির মুখে পড়তে হবে সকল মুখ্যসচিবদের। সুপ্রিম কোর্টে বিচারপতি অরুণ মিশ্র, পাঞ্জাব ও হরিয়ানার মুখসচিবদের কাছে জানতে চান, ‘‌আপনারা কি এ ভাবে মানুষকে মরতে দিতে পারেন? কেন সরকার বারবার ফসলের গোড়া পোড়ানো রুখতে ব্যর্থ হচ্ছে?‌’‌ আসলে ফসলের গোড়া নষ্ট করা নিষিদ্ধ হলে কৃষিকাজ ধাক্কা খাবে। কেন এ নিয়ে কোনও নির্দিষ্ট পরিকল্পনা নেই জানতে চেয়ে কেন্দ্রকে চেপে ধরে দেশের শীর্ষ আদালত।

জবাবে পাঞ্জাব সরকার জানায়, মাঠের ফসলের গোড়া তুলে ফেলার জন্য মোট ১৮ হাজার যন্ত্র বিলিয়ে রাজ্য সরকার। কিন্তু কোনোরকম সাহায্য করেনি কেন্দ্র। উত্তরে বিচারপতিরা জানান, ‘‌যন্ত্র বিতরণ উদ্যোগ কেন আগে শুরু করা হয়নি। কেন রাজ্যগুলিকে বারবার কেন্দ্রের ওপর নির্ভর করতে হচ্ছে?‌’‌ এরপর হরিয়ানা সরকার জানায়, আগাছা তোলার যন্ত্রের দাম বেশি হওয়ার কারণে চাষীরা কিনতে চাইছেন না। এর উত্তরে বিচারপতিরা বলেন, “তাও তো কয়েকদিন আগে থেকেই কাজ শুরু করেছে পাঞ্জাব। কিন্তু হরিয়ানা একেবারেই থিম আছে।” এদিকে সার্বিক পরিস্থিতি সামলাতে, ফসলের গোড়া তোলার যন্ত্র পঞ্জাব, হরিয়ানা ও উত্তরপ্রদেশের চাষিদের দ্রুত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *