Subhendu Adhikari Chapter Closed in TMC

তৃণমূলে শুভেন্দু অধ্যায় এখন অতীত – দলবদলের হাতছানি !

কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে তৃণমূলের পক্ষ থেকে শুভেন্দুর (Subhendu Adhikari Chapter Closed) সঙ্গে আলোচনা করেছেন সাংসদ সৌগত রায়।

নিজস্ব সংবাদদাতা: ধীরে ধীরে শুভেন্দুর প্রসঙ্গকে সরিয়ে দিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। একই সাথে শুভেন্দু অধিকারীও, অন্য পথ দেখতে তৈরী। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে তৃণমূলের পক্ষ থেকে শুভেন্দুর (Subhendu Adhikari Chapter Closed) সঙ্গে আলোচনা করেছেন সাংসদ সৌগত রায়। এই বৈঠকে ছিলেন বর্ষীয়ান সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রশান্ত কিশোর। সেই বৈঠকের পর সৌগত জানিয়েছিলেন, সব সমস্যা মিটে গিয়েছে। যদিও সেই রাতে শুভেন্দুর কোনও বক্তব্য জানা যায়নি। তার পরেই ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে যান শুভেন্দুবাবু। তিনি স্পষ্ট ভাবে জানান, একেবারেই একতরফা ভাবে সব চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে।

Subhendu Adhikari Chapter Closed in TMC
Subhendu Adhikari Chapter Closed in TMC

ঠিক ছিল, ৬ই ডিসেম্বর সাংবাদিক বৈঠক করে নিজের রাজনৈতিক অবস্থান স্পষ্ট করবেন। অথচ তার আগেই সৌগতবাবু প্রকাশ্যে সব জানিয়ে দেওয়াতে অসন্তুষ্ট হন শুভেন্দুবাবু। একই সাথে তিনি জানান, এরপর আর একসাথে কাজ করা সম্ভব নয়। এই এক ম্যাসেজে, ঝড় ওঠে বাংলার রাজনীতির ক্ষেত্রে। বোঝা যাচ্ছে, তারের বৈঠকে কোনো সমাধান সূত্র মেলে নি। বরং তৃণমূলের সাথে আরও দূরত্বই তৈরি হয়ে গেছে শুভেন্দুবাবুর সাথে। এখন দল গঠন বা দল পাল্টানো শুধু সময়ের অপেক্ষা। পরিস্থিতি যেখানে পৌঁছেছে, নাটকীয় কিছু না ঘটলে তৃণমূল-শুভেন্দু আলোচনার দরজা সম্ভবত আর খুলছে না।

[ আরো পড়ুন ] আজ থেকে চালু ৫৪টি প্যাসেঞ্জার ট্রেন পরিষেবা

আজ তৃণমূলের পক্ষ থেকে সৌগতবাবু জানান, নতুন করে আর আলোচনায় বসা হবে না। ভোটের আগে এই টানাপোড়েনে ইতি টানতে চাইছে তৃণমূল নেতৃত্ব। বর্ষীয়ান সৌগতবাবু জানান, ‘শুভেন্দুকে নিয়ে আমার আর নতুন করে কিছু বলার নেই৷’ এদিকে আজ স্বাধীনতা সংগ্রামী বীর ক্ষুদিরাম বসুর ১৩১ তম জন্মদিনে তমলুকের হাসপাতাল মোড়ে শহিদ ক্ষুদিরাম বসুর মূর্তিতে মাল্যদান করেন বিধায়ক শুভেন্দু অদিকারী। তিনি অগণিত অনুগামীদের নিয়ে পদযাত্রায় সামিল হন। পায়ে হেঁটে যান হ্যামিল্টন স্কুলে।
সেখানে তিনি জানান, “আমি বাংলার সন্তান, ভারতের সন্তান।” আগামী ৬ই ডিসেম্বর শুভেন্দু অধিকারী, সাংবাদিক বৈঠক করে নিজের রাজনৈতিক অবস্থান স্পষ্ট করবেন।

[ আরো পড়ুন ] ‘দুয়ারে সরকার’ – গোটা রাজ্যে ২০ হাজার শিবির

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *