TMC Brings Out Report Card of 10 Years of Their Govt in West Bengal

তৃণমূলের রিপোর্ট কার্ড প্রকাশিত – রাজ্যের উন্নয়নের ১০ বছর

কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ

রাজ্যে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির সভার দিন, তৃণমূল গত ১০ বছরের উন্নয়নের খতিয়ান (TMC Report Card) প্রকাশ করলো। গত বিধানসভা …

নিজস্ব সংবাদদাতা: সামনেই ২১-এর বিধানসভা নির্বাচন। তৃতীয়ও বারের জন্য মসনদ ধরে রাখতে মরিয়া তৃণমূল নেতৃত্ব। রাজ্যে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির সভার দিন, তৃণমূল গত ১০ বছরের উন্নয়নের খতিয়ান (TMC Report Card) প্রকাশ করলো। গত বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের বেশ কিছু ইস্তেহার ছিল। সেটাকেই সামনে আনলো দলের নেতৃত্ব। এই ইস্তেহারে পূর্বের প্রতিশ্রুতির সার্বিক খতিয়ান দেওয়া হচ্ছে। জানানো হয়েছে এখন পর্যন্ত রাজ্যে তার কতটা হয়েছে, আর কতটা বাকি আছে। এর সঙ্গে যোগ করা হয়েছে রাজ্য সরকারের সাম্প্রতিক কিছু ঘোষণা।

TMC Brings Out Report Card of 10 Years of Their Govt in West Bengal
TMC Brings Out Report Card of 10 Years of Their Govt in West Bengal

ডিএ বাড়ানো, কোভিড টেস্টের খরচ কমানো, দ্বাদশ শ্রেনির ছাত্রছাত্রীদের ট্যাব, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প থাকছে এই রিপোর্ট কার্ডে। এই সমৃদ্ধ রিপোর্ট কার্ড প্রতিটি বিধানসভায় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে মানুষের দুয়ারে পৌঁছে যাবে। আগামীকাল থেকেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এই উপলক্ষ্যে আজ তৃণমূল ভবনে উপস্থিত ছিলেন দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, মেয়র ফিরহাদ হাকিম ,ইন্দ্রনীল সেন সহ প্রমুখ নেতারা।

[ আরও পড়ুন ] তৃণমূল ১০০ দিন ১ কোটি মানুষের কাছে যাবে

রিপোর্টে প্রথমে আছে রাজ্যবাসীর গড় আয়। গত এক দশকে বাংলার মানুষের আয় দ্বিগুণ বেড়েছে। এর সাথে শিল্প ও অনুসারি শিল্পক্ষেত্রে আয় বেড়েছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে আছে শিক্ষাক্ষেত্র। শিক্ষা, ক্রীড়া, শিল্প ও সংস্কৃতি ক্ষেত্রে বাজেট অনেক বেড়েছে। রাজ্যের কন্যাশ্রী, সবুজসাথী, মিড-ডে মিল, পোশাক বিলির কাজে উপকৃত হয়েছেন অগণিত শিক্ষার্থীরা। গত ১০ বছরে রাজ্যে ৩০টি বিশ্ববিদ্যালয় ও ৫০টি কলেজ-সহ একাধিক নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তৈরি হয়েছে।

[ আরও পড়ুন ] ৩১শে ডিসেম্বর রেশন কার্ড ও আধার যুক্তের প্রক্রিয়া শেষ

সকলের জন্য স্বাস্থ্যসাথী কার্ড উল্লেখ্যযোগ্য ভূমিকা নিয়েছে। রাজ্যজুড়ে তৈরি হয়েছে একাধিক হাসপাতাল। খাদ্যসাথী প্রকল্পে উপকৃত হয়েছে রাজ্যের প্রায় ১৮ কোটি মানুষ। নিজের ঘর পেয়েছেন প্রায় ৩৪ লক্ষ মানুষ। ১০০ দিনের কাজ সুনিশ্চিত করেছে রাজ্যের ১.৬৩ কোটি কর্মসংস্থান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *