West Bengal govt brings a car with canon to stop Coronavirus and sanitize area

করোনা নিয়ন্ত্রণে কলকাতায় ২৭ লক্ষের ‘বিশেষ গাড়ি’

কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ

এই রাজ্যে কলকাতাতেই সবচেয়ে সংক্রমণের মাত্রা বেশি। তাই এবার সচেতন সরকার করোনা রুখতে (Stop Coronavirus) কামান দাগার কথা ভাবলেন …

নিজস্ব সংবাদদাতা: ভাইরাসের চাপ ক্রমশ বেড়েই চলেছে। নিরাপদ দূরত্ব মানার সাথে নিজেকে জীবাণু মুক্ত করার দিকেও নজর দেওয়া হয়েছে। একই সাথে রাস্তা, বাজার ও অফিসকে পরিষ্কার করার বিষয় প্রকট হয়েছে। এই রাজ্যে কলকাতাতেই সবচেয়ে সংক্রমণের মাত্রা বেশি। তাই এবার সচেতন সরকার করোনা রুখতে (Stop Coronavirus) কামান দাগার কথা ভাবলেন।

[ আরো পড়ুন ] হাইকোর্ট: রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ডিএ দিতেই হবে

বিশাল আকারের আধুনিক এই গাড়ি শহর কলকাতাকে খুব কম সময়ের মধ্যে জীবাণু মুক্ত করতে পারবে। সেই গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিতে চলেছে কলকাতা পুরসভা। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ার সাথে বাড়ছে কনটেইনমেন্ট এলাকা। কিন্তু পরিস্থিতি সামলানো বা নিয়ন্ত্রণে রাখার সরঞ্জামের সংখ্যা নগন্য। আক্রান্ত একটি এলাকায় স্প্রে করার গাড়ি কাজ শেষ করতে অনেক সময় ব্যয় করছে। আসলে ঠিক এই কাজের গাড়ি বাজারে আগে ছিল না।

West Bengal govt brings a car with canon to stop Coronavirus and sanitize area
West Bengal govt brings a car with canon to stop Coronavirus and sanitize area

তাই এবার জল কামানের আধুনিক বিজ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে ২৭ লক্ষ টাকার নতুন গাড়ি কেনা হয়েছে। দামি বলেই এই গাড়ির কার্যক্ষমতাও বিস্ময়ের। অনেকটা কম সময়ে অনেকটা এলাকা জীবাণুনাশক ছড়াতে সক্ষম এই কামান গাড়ি। এই বিশাল আকৃতির গাড়ির জন্য প্রয়োজন মস্ত জায়গা। শহরের ফুটপাত, চওড়া রাস্তা, অফিস, বড় বিল্ডিং জীবাণুমুক্ত করতে পারবে কয়েক মুহূর্তে। জানা যাচ্ছে, ৮০ মিটার দূর পর্যন্ত সোডিয়াম হাইপোক্লোরাইড মিশ্রিত তরল স্প্রে করতে পারে এই গাড়ির স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা।

[ আরো পড়ুন ] পশ্চিমবঙ্গে কোথায় কোথায় আবার লকডাউন, জেনে নিন

বিশেষ প্রয়োজনে ৩৬০ডিগ্রি অ্যাঙ্গেলে ঘুরতে সক্ষম এই গাড়ি। এর পিছনে একটি জেনারেটররাখা আছে। আর বিশাল জলের ট্যাঙ্কার গাড়ির সামনে রয়েছে । সেখান থেকে গোলার মতো এই তরল বার হবে। আগামী শনিবার, দুপুরে রাসমণি রোডে, মাননীয় মেয়র ফিরহাদ হেকিম মহাশয় এই গাড়ির উদ্বোধন করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *