Wet Bengal govt will get Rs 2100 crore due electric bill

বকেয়া বিদ্যুতের বিল – রাজ্যের পাওনা ২১০০ কোটি টাকা

কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ

শেষ চার মাসে সাধারণ মানুষ ও শিল্প কারখানার কাছে বিদ্যুৎ দপ্তরের পাওনা (Due electric bill) অন্তত ২১০০ কোটি টাকা দাঁড়িয়েছে। এই বিপুল বোঝা …

নিজস্ব সংবাদদাতা: কয়েক মাস ধরে গোটা রাজ্য ঘর বন্দি হয়ে ছিল। আনলক পর্বে কিছুটা কাজের জায়গা খুলেছে। কিন্তু শেষ চার মাসে সাধারণ মানুষ ও শিল্প কারখানার কাছে বিদ্যুৎ দপ্তরের পাওনা (Due electric bill) অন্তত ২১০০ কোটি টাকা দাঁড়িয়েছে। এই বিপুল বোঝা সামাল দিতে, বিভিন্ন বিদ্যুৎ প্রস্তুতকারী সংস্থাকে প্রাপ্য টাকা মেটাতে ঋণ করতে হয়েছে। এক হাজার কোটি টাকার বেশি ধার করতে হল বিদ্যুৎ দপ্তরকে। তবে এই লকডাউন পর্বে রাজ্যে চাহিদা কম থাকায় দৈনিক এক হাজার মেগাওয়াট কম জোগান দিতে হয়।

Wet Bengal govt will get Rs 2100 crore due electric bill

জানা যাচ্ছে, নবান্ন বিভিন্ন দপ্তরের কাছে নতুন অর্থবর্ষের প্রথম চার মাসের আয়ের হিসাব চায়। সার্বিক পরিস্থিতি যাচাই করতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে রাজ্য সরকারের কর্মীদের কোনো রকম বেতন কাটা হয়নি। এর সাথে বিদ্যুৎ দপ্তরের চুক্তিভিত্তিক কর্মীদেরও প্রাপ্য ভাতা মিটিয়ে দেওয়া হয়েছে। সাধারণ মানুষের কাছ থেকে টাকা আদায়ের জন্য কোনো নির্দেশিকা জারি করা হয় নি। রাজ্য সরকার যদিও এই সংকটের সময়ে আর্থিক পরিস্থিতির কথা ভেবে মেয়াদ বা কিস্তিতে টাকা জমা দেওয়ার সুযোগ করেছে।

[ আরো পড়ুন ] এবার রেশন তুলতে মোবাইলের ওটিপি ও আধার সংযুক্তি

খুব মেপে পদক্ষেপ নিতে হচ্ছে নবান্নকে। বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় জানান, “ভাইরাস আবহে রাজ্যের মানুষের অনেকটাই আয় কমে গিয়েছে। অনেকের হাতে আর কাজ নেই। সেই কারণেই মানবিকতার খাতিরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশেই কোনও সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়নি। আর ২১০০ কোটি টাকার মতো পাওনা রয়েছে। তবে এর মাঝে অনেকেই টাকা পরিশোধ করছেন। এরই মাঝে ১০২৪ কোটি টাকা ধার করতে হয়েছে রাজ্যকে।” পরিস্থিতি বিচার করে, এই সাহসী সিদ্ধান্তকে অনেকেই কুর্নিশ জানিয়েছেন।

[ আরো পড়ুন ] বেতন নেই টানা কয়েক মাস – মিড ডে মিল কর্মীদের বিক্ষোভ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *