Whatsapp in Kashmir Stopped Servicing

Whatsapp in Kashmir: এবার বন্ধ হল হোয়াটসঅ্যাপ

কলকাতা

মিডিয়ার জানলা বন্ধ হয়ে গেলো। একটানা ইন্টারনেটে নিষেধাজ্ঞার জেরে কাশ্মীরিদের জন্য হোয়াটসঅ্যাপ (Whatsapp in Kashmir) এবার বন্ধ হচ্ছে।

আবার এক সমস্যা নেমে এলো কাশ্মীরের মানুষদের কাছে। নামী স্যোশাল মিডিয়ার জানলা বন্ধ হয়ে গেলো। একটানা ইন্টারনেটে নিষেধাজ্ঞার জেরে কাশ্মীরিদের জন্য হোয়াটসঅ্যাপ (Whatsapp in Kashmir) এবার বন্ধ হচ্ছে। কাশ্মীরে ইন্টারনেটে নিষেধাজ্ঞা ১২০ দিন পার হয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপের নীতি অনুযায়ী, ১২০ দিন ধরে ওই সোশ্যাল মিডিয়ায় কারও অ্যাকাউন্টে কোনও বার্তা আদানপ্রদান বন্ধ থাকলে, সেই অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘদিন এই গ্রাহকরা সক্রিয় নেই। সেই কারণেই তাঁদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এঁদের মধ্যে বহু গ্রাহক বরাবরের মতো তাঁদের অ্যাকাউন্ট ডেটা হারাবেন। যার মধ্যে চ্যাট লগ, ইমেজ, ভিডিও রয়েছে।

অ্যাকাউন্ট বন্ধ হওয়ার পর অনেক ব্যবহারকারীই নিজেদের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে বিভিন্ন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের স্কিনশট পোস্ট করেন। ওই ছবিগুলিতে দেখা যায় কাশ্মীরের নাগরিকরা বিভিন্ন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে বেরিয়ে আসছেন। কিন্তু, পরে জানা যায় হোয়াটসঅ্যাপের নিয়ম অনুযায়ী এটা ঘটছে। কেউ স্বেচ্ছায় গ্রুপ ছাড়ছেন না। নিরাপত্তা ও গ্রাহকদের তথ্য মজুত রাখার জন্যই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এই সিদ্ধান্তের ফলে কাশ্মীরের মানুষ ক্রমশই ডিজিটাল ইন্ডিয়া থেকে দূরে সরে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠছে।

একেবারে প্রথম দিকে ২২টি সোশ্যাল সাইট বাতিল করা হল জম্মু কাশ্মীরে ৷ উপত্যকায় ফেসবুক, টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপ-সহ বিভিন্ন সোশ্যাল সাইট নিষিদ্ধ করেছিল জম্মু কাশ্মীরের সরকার ৷ দেশ বিরোধী কার্যকলাপের জন্য সোশ্যাল সাইটের অপব্যবহার করা হয়ে থাকে ৷ সমাজ-বিরোধী শক্তিগুলি এর মাধ্যমে অশান্তি সৃষ্টি করে থাকে ৷ তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল সরকারের তরফে ৷ সময় পার হয়েছে অনেকটা। তবু সচল নয় নেট পরিষেবা।হোয়াটসঅ্যাপের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফেসবুকের মুখপাত্র মানছেন, ১২০ দিন নিষ্ক্রিয় থাকলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যায়। নিরাপত্তা ও তথ্য মজুত রাখার উপরে নিয়ন্ত্রণ রাখতে এই পদক্ষেপ। অনেকের মতে, জানতে না পারলেও, কাশ্মীরিদের ডিজিটাল উপস্থিতির বড় অংশ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে‌।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *