Shankudeb Panda Joined BJP

এবার শঙ্কুদেব পণ্ডা এলেন বিজেপির ঘরে – Shankudeb Panda Joined BJP

পশ্চিমবঙ্গ

জানা যাচ্ছে, আজ দুপুরেই শঙ্কুদেব পণ্ডা যোগ দিচ্ছেন বিজেপিতে।

তৃণমূলের অন্দরে কোনঠাসা থেকে ব্রাত্য হয়েছিলেন অনেক আগেই। প্রাক্তন তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতা শঙ্কুদেব পণ্ডা একসময় রাজ্য সম্পাদকের দায়িত্বও সামলেছেন। জানা যাচ্ছে, আজ দুপুরেই শঙ্কুদেব পণ্ডা যোগ দিচ্ছেন বিজেপিতে। এখন তিনি দিল্লিতে রয়েছেন। সেখানে বিজেপি কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে ঘন ঘন আলোচনা, বৈঠকের পর চূড়ান্ত হয়েছে তাঁর এই যোগদানের খবর। তাই অতীতের এই দোর্দণ্ডপ্রতাপ ছাত্রনেতা শঙ্কুদেব পণ্ডার পদ্ম শিবিরে আসা শুধু সময়ের অপেক্ষা। রাজ্যের একাধিক দলবদলের খেলা ভালো ভাবেই শুরু হয়েছে|

অনেকদিন ধরেই থেকেই ছাত্র রাজনীতির সঙ্গে গভীরভাবে যুক্ত এই শঙ্কুদেব পণ্ডা। সেসময় বাম ছাত্র সংগঠনের বিপরীতে গিয়ে দক্ষিণপন্থী রাজনৈতিক শিবিরে তাঁর হাত পাকানো অনেকের কাছেই ছিল দুঃসাহসের কাজ। কিন্তু ততদিনে শঙ্কুদেব সেই সময়ের যুব কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখে ফেলেছেন। তাই পরবর্তী সময়ে কংগ্রেস থেকে সরে এসে তৃণমূল কংগ্রেস তৈরির পর শঙ্কুদেব পণ্ডা ছাত্র সংগঠনে যোগ দেন। দায়িত্বের টিএমসিপি নেতা হিসেবে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন। পণ্ডা ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্নেহধন্য আর তাই পরবর্তী সময়ে দলের অন্যতম রাজ্য সম্পাদকের মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে ছিলেন।

কিন্তু তাঁর বিরুদ্ধে অগণিত দুর্নীতি, আর্থিক তছরূপের অভিযোগে মামলা দায়ের হওয়ার পর ২০১৪ সালে দলের সমস্ত ছোট-বড়ো পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। ২০১৬ সালের বিখ্যাত নারদা স্টিং অপারেশনের ভিডিও ফুটেজে ভালো ভাবেই দেখা গিয়েছিল শঙ্কুদেব পণ্ডাকে। ভিডিও অনুযায়ী তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, নতুন সংস্থা খুলতে প্রশাসনিক অনুমোদন পাইয়ে দেওয়ার জন্য তিনি জনৈক ব্যক্তির কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করেছেন।

মামলাটি সিবিআই তদন্তের আওতায় হওয়ায় তাঁকেও একাধিকবার কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার জেরার মুখে পড়তে হয়। সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে ডেকে তার কাছ থেকে চাওয়া হয় একাধিক প্রয়োজনীয় তথ্য, গোপন নথি। দলের বিড়ম্বনা বাড়িয়ে, সারদায় জড়িয়ে দলকে অস্বস্তিতেও ফেলেছেন। এর আগে ১১ বার সিবিআই দফতরে হাজিরা দিয়েছিলেন। কিন্তু ১২তম দিনে এসে, তিনি সব গুলিয়ে ফেলেন। দলের মধ্যে ধীরে ধীরে নিজের অস্তিত্ব হারিয়ে শঙ্কুদেব কার্যত নিজেকে সক্রিয় রাজনীতি থেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন।

বিপদ বুঝে, এরই মাঝে নিজের কেরিয়ার অন্যভাবে সাজাতে নতুন অঙ্ক কষতে শুরু করেন শঙ্কুদেব পণ্ডা। গত ২০১৭ সালে সিঙ্গুর, নন্দীগ্রাম আন্দোলনের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করেন সিনেমা –”কমরেড”। ব্যতিক্রমী বাংলা ছবিটি বক্স অফিসে তেমন সাফল্য না পেলেও, সমালোচক মহলে প্রশংসিত হয়। তারপর বেশ দীর্ঘ সময় কোনও রাজনৈতিক দলের সংস্পর্শে ছিলেন না শঙ্কুদেব। এবার গেরুয়া শিবিরে যোগ দিয়ে রাজনৈতিক জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করতে চলেছেন রাজ্য স্তরের এই তৃণমূল নেতা।

তাই পছন্দের পুরনো দলের সঙ্গে শুরু হচ্ছে তাঁর নতুন রাজনৈতিক লড়াই। আজ দুপুর ২টোয়া রাজ্য বিজেপি সদর দফতরে বিজেপিতে যোগদান করবেন তিনি। তাঁরই সঙ্গে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছেন অভিনেতা বিশ্বজিত্ চট্টোপাধ্যায়েরও। জানা যাচ্ছে, মুকুল রায়ের হাত ধরেই বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন শঙ্কুদেব। এই আগমন, নিঃসন্দেহে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিব্রত করবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে এই রং পাল্টে ঘর-বদল কতটা ভূমিকা নেবে, সেটাই দেখার|

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *