Bhangar power grid to be opened soon in South 24 Parganas of West Bengal

দীর্ঘ টানাপড়েনের অবশান – বিদ্যুৎ ভাঙ্গর পাওয়ার গ্রিডে

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের খবর

সব বাধা কাটিয়ে কাজ শেষ হয়েছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙ্গর পাওয়ার গ্রিডের (Bhangar power grid) সাবস্টেশনে বিদ্যুৎ আসা শুধু সময়ের অপেক্ষা।

নিজস্ব সংবাদদাতা: অবশেষে রাজ্য সরকারের সাফল্যের স্বস্তি এলো। অনেক সমস্যা শেষে ভাঙ্গরে বিদ্যুৎ মিলবে। বিগত কয়েক বছর ধরেই সেখানে কাজ আটকে যায়। থেমে যায় কাজের ধারাবাহিকতা। মানুষের মধ্যে নানা অবৈজ্ঞানিক চিন্তাধারা প্রবেশ করে। সেই সব বাধা কাটিয়ে কাজ শেষ হয়েছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙ্গর পাওয়ার গ্রিডের (Bhangar power grid) সাবস্টেশনে বিদ্যুৎ আসা শুধু সময়ের অপেক্ষা।

এ ব্যাপারে রাজ্যের সঙ্গে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা পাওয়ার গ্রিড কর্পোরেশনের কথা শুরু হয়েছে। রচিত হবে এক ইতিহাসের প্রেক্ষাপট। নতুন এই সাবস্টেশনের সাথে হাই-ভোল্টেজ তারের মাধ্যমে মুর্শিদাবাদের গোকর্ণ সাবস্টেশনের যোগাযোগ হয়েছে। আবার একই ভাবে হাই-ভোল্টেজ তারের যোগাযোগ হয়েছে ফরাক্কার এনটিপিসি সাবস্টেশনের। পাওয়ার গ্রিডে বিহারের পূর্ণিয়া সাবস্টেশন থেকে ফরাক্কা ও গোকর্ণের মধ্যে তারের যোগাযোগ হয়েছে।

Bhangar power grid to be opened soon in South 24 Parganas of West Bengal
Bhangar power grid to be opened soon in South 24 Parganas of West Bengal

ফলে এর পরে শুধু গ্রিড লাইনে বিদ্যুৎ দেওয়া হবে। তাহলেই যারপরনাই উপকৃত হবেন রাজারহাট, নিউটাউন-সহ কলকাতা শহরতলি এবং উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার কয়েক লক্ষ বিদ্যুৎ গ্রাহক। শুধু তাই নয়, গোটা রাজ্যের বিদ্যুৎ সংবহন ক্ষমতা ৩০০০ মেগাওয়াট বেড়ে যাবে। স্বস্তি ফিরবে রাজ্যের বিদ্যুৎ দপ্তরে। কয়েক মাস আগেই সুভাষগ্রাম-জিরাট বিদ্যুৎ লাইনের সঙ্গে এই সাবস্টেশনে বিদ্যুৎ সংযোগ করা হয়।

[ আরো পড়ুন ] তৃণমূল বিধায়ক বিধায়ক তমোনাশ ঘোষ পরলোকে

ভাঙড় থেকে দু’টি হাই-ভোল্টেজ লাইন। যোগ হয়েছে গোকর্ণয় ও ফরাক্কা সাবস্টেশনে। বিহারের পূর্ণিয়া সাবস্টেশন থেকে অন্য একটি লাইন এসে মিশেছে ফরাক্কায়। এই প্রকল্প খরচ ১৩০০ কোটি টাকা। আবার ভাঙড় থেকে গোকর্ণ লাইন টানার খরচ হয়েছে ৮০০ কোটি টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *