Bengali elocutionist stalwart Pradip Ghosh passes away

আবৃত্তিকার ও বাচিক শিল্পী প্রদীপ ঘোষ পরলোকে

বিনোদন

তিনি (Bengali elocutionist stalwart Pradip Ghosh passes away) আজ শুক্রবার ভোর রাতে যোধপুর পার্কে নিজের বাড়িতেই শেষ নিঃশ্বাস …

নিজস্ব সংবাদদাতা: বাংলার আরও এক নক্ষত্র পতন। বাংলার সংস্কৃতির জগতে নেমে এলো শোকের ছায়া। প্রখ্যাত আবৃত্তিকার প্রদীপ ঘোষ পরলোকে। উপসর্গহীন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তাঁর জীবনাবসান হয়। তিনি (Bengali elocutionist stalwart Pradip Ghosh passes away) আজ শুক্রবার ভোর রাতে যোধপুর পার্কে নিজের বাড়িতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। প্রদীপবাবুর প্রয়াণে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Bengali elocutionist stalwart Pradip Ghosh passes away
Bengali elocutionist stalwart Pradip Ghosh passes away

সরকারি চাকুরিজীবী প্রদীপবাবু দীর্ঘদিন সংস্কৃতির বিশেষ অনুরাগী ছিলেন। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগে যুগ্ম তথ্য অধিকর্তা হিসাবে দক্ষতার সঙ্গে কাজ করেছেন। ২০১৭ সালে রাজ্য সরকার, তাঁকে কাজী সব্যসাচী পুরস্কার প্রদান করে। প্রদীপ ঘোষের মৃত্যুর খবরে শোকপ্রকাশ করেছেন ব্রততী বন্দ্যোপাধ্যায়, জগন্নাথ বসু, দেবাশিস বসু ও অন্যান্য বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা।

জগন্নাথ বসু বলেন, ‘অসাধারণ কণ্ঠের অধিকারী না হয়েও দক্ষতায় নিজের স্বর ব্যবহার করতে জানতেন প্রদীপ। মাইকে একেবারে মুখ ঠেকিয়ে তিনি আবৃত্তি করতেন অনায়াসে। এটি কেউ কোনও দিন করেননি।’ নজরুল পুত্র কাজী সব্যসাচীর সঙ্গে মঞ্চ ভাগ করে নিয়ে বহু কবিতা পাঠ করেছেন। ব্রততী বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, ‘‘ আবৃত্তির দুনিয়ায় তরুণ তুর্কী প্রদীপ ঘোষ। প্রদীপদার কণ্ঠস্বর, বলার ভঙ্গি, উচ্চারণের স্পষ্টতা ও ব্যক্তিত্ব সকলকে মুগ্ধ করেছিল।’’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *