Biography of Singer and Songwriter Kabir Suman

Kabir Suman: গায়ক সুমন চট্টোপাধ্যায়ের জন্মদিন

ইতিহাস বিনোদন

রাষ্ট্র মানেই
কাঁটাতারে ঘেরা সীমান্ত
রাষ্ট্র মানেই
পাসপোর্ট নিয়ে উমেদারি
রাষ্ট্র মানেই
ম্যাপে বাঁধা আমার দিগন্ত
রাষ্ট্র মানেই
সবকিছু দারুণ সরকারি।
রাষ্ট্র মানেই
জন্মেই নাগরিক
তারপরে করণিক
মধ্যবিত্ত সুখদুঃখ …
Kabir Suman

সুমন চট্টোপাধ্যায় ( Suman Chattopadhyay ) ভারতীয় বাঙালি গায়ক, গীতিকার, অভিনেতা, বেতার সাংবাদিক, গদ্যকার ও সংসদ সদস্য। ১৯৪৯ সালের ১৬ই মার্চ তিনি জন্মগ্রহণ করেন। বাংলা গানের এক নতুন ধারার প্রবর্তক তিনি। ২০০০ সালে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়ে তিনি তার পুরনো নাম পরিত্যাগ করেন। তার মতে,”চট্টোপাধ্যায়” পদবিটায় আমার বাবার কোনও হাত ছিল না। চাটুজ্যের ছেলে চাটুজ্যে। আমার বাবা নাস্তিক ছিলেন। আমার মায়ের পদবি বিয়ের আগে ছিল ভট্টাচার্য। তাতে তাঁর কোনও হাত ছিল না। বাবাকে বিয়ে করে চাটুজ্যে। সেখানেও মায়ের কোনও হাত ছিল না। “সুমন” নামটি (Kabir Suman) আমার বাবামায়ের দেওয়া। রাষ্ট্রীয় অনুজ্ঞায় ওই নামটি আজ আমার পদবি। ফার্স্টনেম: কবীর। – এতে লোকের আপত্তির কারণ কী?

 Singer Suman Chattopadhyay
Singer Suman Chattopadhyay

বিংশ শতাব্দীর আশির দশকে বাংলা গানের মন খারাপের পালে কবীর সুমন আনেন টাটকা তাজা সুরের বাতাস। সেই শুরু ” তোমাকে চাই।” কথা, শব্দ, সুর আর কবীর সুমন নামক এক মহীরুহ গানের জগতে বেঁচে থাক শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে। গানও যে হয়ে উঠতে পারে প্রতিবাদের ভাষা, বিপ্লবের স্লোগান– নজরুল, রবীন্দ্রনাথ না সলিল চৌধুরীর পরবর্তী সময়ে বাংলা গানের জগতে তা বোধহয় এই একটি মানুষের ক্ষেত্রেই বলা যায়। সুমন একজন বিশিষ্ট আধুনিক ও রবীন্দ্রসংগীত গায়ক। ১৯৯২ সালে তার তোমাকে চাই অ্যালবামের মাধ্যমে তিনি বাংলা গানে এক নতুন ধারার প্রবর্তন করেন। তার স্বরচিত গানের অ্যালবামের সংখ্যা পনেরো। সঙ্গীত রচনা, সুরারোপ, সংগীতায়োজন ও কণ্ঠদানের পাশাপাশি গদ্যরচনা ও অভিনয়ের ক্ষেত্রেও তিনি স্বকীয় প্রতিভার সাক্ষর রেখেছেন।

বাংলা সাহিত্যের জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক সমরেশ মজুমদারের – আরও জানতে ক্লিক করুন …

তিনি একাধিক প্রবন্ধ, উপন্যাস ও ছোটোগল্পের রচয়িতা এবং হারবার্ট ও চতুরঙ্গ প্রভৃতি মননশীল ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রের রূপদানকারী। বিশিষ্ট বাংলাদেশি গায়িকা সাবিনা ইয়াসমিন তার বর্তমান সহধর্মিনী। নন্দীগ্রাম গণহত্যার পরিপ্রেক্ষিতে কৃষিজমি রক্ষার ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিচালিত আন্দোলনে তিনি সক্রিয়ভাবে যোগদান করেন এবং সেই সূত্রে সক্রিয় রাজনীতিতে তার আবির্ভাব ঘটে। ২০০৯ সালে তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে দেশের পঞ্চদশ লোকসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন ও জয়লাভ করে উক্ত কেন্দ্র থেকে সাংসদ নির্বাচিত হন। ২০১৪ সালে দেশের শ্রেষ্ঠ সঙ্গীত পরিচালক মনোনীত হন জাতিস্মর চলচ্চিত্রের জন্য। এখন বাংলা খেয়াল নিয়ে কাজ করছেন তিনি। ” গানওয়ালা”কে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *