Importance and meaning of Fateha-i-Yajdaham

আজ ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম – “নবী দিবস” হিসাবেও পালিত

ইতিহাস

“ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম” এর (Fateha-i-Yajdaham) একত্র অর্থ হলো বারোর প্রার্থনা। আর এই দিনকেই মুসলিমবিশ্ব ফাতেহা দোয়াজ দাহাম …

নিজস্ব সংবাদদাতা: মুসলমান সমাজের কাছে ফাতেহা দোয়াজ দাহাম একটি বিষের পবিত্র দিন। গোটা বিশ্বেই পরম শ্রদ্ধার সাথে এই দিনটি পালিত হয়। এদিন আরবের বুকে জন্ম নেন শেষ নবী হজরত মোহাম্মদ(সা)। আরবি ক্যালেন্ডারের তৃতীয় মাস রবিউল আউয়ালের ১২ তারিখ। “ফাতেহা” আরবি শব্দের অর্থ মোনাজাত, দোয়া, বা প্রার্থনা ৷ আর “দোয়াজ দাহাম” ও আরবি ,অর্থ বারো ৷ তাহলে “ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম” এর (Fateha-i-Yajdaham) একত্র অর্থ হলো বারোর প্রার্থনা। আর এই দিনকেই মুসলিমবিশ্ব ফাতেহা দোয়াজ দাহাম উপলক্ষ্যে মান্যতা দেয়।

Importance and meaning of Fateha-i-Yajdaham
Importance and meaning of Fateha-i-Yajdaham

বিশ্বাস অনুসারে, আজকের এই দিনেই জন্মগ্রহণ করেছিলেন ইসলাম ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা হজরত মহম্মদ। আর সেই কারণে এই দিনটি, “নবী দিবস” হিসেবে প্রচলিত। “রবিউন” শব্দ থেকে এসেছে রবিউল শব্দ ৷ এর অর্থ হলো বসন্ত বা সবুজের সমারোহ ৷ ইতিহাস জানায়, নবী (সঃ) যে বছর মা আমিনার গর্ভে আসেন সেই বছর মক্কার শুষ্ক মরুভূমি একেবারে প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে ৷ আর সেই বছর সেখানকার গাছগুলো প্রচুর ফুল ও ফল ভরে ওঠে ৷ বিধর্মী কোরাইশ সম্প্রদায়, সেই জন্য ঐ বছরকে আনন্দ, খুশি ও সঞ্জীবণের বছর আখ্যা দেন ৷

[ আরো পড়ুন ] Arati Saha: প্রথম ভারতীয় মহিলা ইংলিশ চ্যানেল পার করেছিলেন

আসলে ইসলামী রীতি অনুযায়ী জন্ম ও মৃত্যু দিবস পালন করা সম্পূর্ণ ভাবে নিষিদ্ধ ৷ সেই কারণে অনাড়ম্বর ভাবে নমাজ, রোজা, তসবী, কোরান পাঠের মধ্য দিয়ে নবীর জন্য দোয়া প্রার্থনা করার রীতি প্রচলিত আছে ৷ আজ ঈদে মিলাদুন্নবিও পালন করে থাকেন মুসলিমরা। যদিও ঐতিহাসিকদের মধ্যে অনেকে মনে করেন, ৫৭১ খৃষ্টাব্দে তিনি জন্মগ্রহণ করেছিলেন। আবার অনেকে মনে করেন, তিনি ৫৭০ খৃষ্টাব্দে জন্মগ্রহণ করেন। তবে মতের বেশি মানুষেরা মনে করেন, তিনি ৫৭০ খৃষ্টাব্দে আমিনার গর্ভে আসেন ও ৫৭১ খৃষ্টাব্দে ভূমিষ্ঠ হন। ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা, হজরত মহম্মদকে আল্লাহ প্রেরিত দূত হিসাবে স্মরণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *