Prosenjit Chatterjee biography

Prosenjit Chatterjee: পর্দার প্রসেনজিতের শুভ জন্মদিন

ইতিহাস বিনোদন

মাচা, মঞ্চ, টিভি ও পর্দাতে তার জুড়ি মেলা ভার। ‘পোসেনজিৎ আর প্রসেনজিৎ‘ (Prosenjit Chatterjee)। বাংলা সিনেমায় সম্পূর্ণ দুই ধারাতে …

নিজস্ব সংবাদদাতা: একটা মানুষ একা, একটা ইন্ডাস্ট্রিকে টেনে চলেছে দীর্ঘদিন ধরে। নানা ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্যে বাংলা সিনেমাকে বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করেছেন। মাচা, মঞ্চ, টিভি ও পর্দাতে তার জুড়ি মেলা ভার। ‘পোসেনজিৎ আর প্রসেনজিৎ‘ (Prosenjit Chatterjee)। বাংলা সিনেমায় সম্পূর্ণ দুই ধারাতে তিনি চরম সাবলীল। আজ তার জন্মদিন। ৫৮ বছরেও তিনি একটুও থামেন নি। দীপিকা চিকলিয়া, জুহি চাওলা, বিজয়েতা পণ্ডিত, অনুশ্রী, পাপিয়া অধিকারী। ইন্দ্রাণী হালদার, দেবশ্রী, ঋতুপর্ণা, রচনা, অর্পিতা সহ নানা অভিনেত্রীর সাথে পর্দায় আলোড়ন তুলেছেন স্বমহিমায়। তাপস পাল, চিরঞ্জিত, মিঠুন,অভিষেক, থেকে জিৎ, দেব, যীশু ও আবিরের সাথেও সমান তালে ছুটে চলেছেন।

Prosenjit Chatterjee biography
Prosenjit Chatterjee biography

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ১৯৬২ সালের ৩০শে সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। প্রায় তিন দশকের বেশি সময় ধরে তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের নায়ক হিসাবে শীর্ষস্থানে আছে। প্রসেনজিৎ বিখ্যাত বাংলা এবং হিন্দি ছবির নায়ক বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও রত্না চট্টোপাধ্যায়ের ছেলে। প্রায় ৩৫০টির বেশি চলচ্ছিত্রে তিনি অভিনয়ই করেছেন। তার প্রথম স্ত্রী ছিলেন অভিনেত্রী দেবশ্রী রায়। এরপর তিনি অপর্না গুহঠাকুরতাকে বিয়ে করেন। আর বর্তমানে অর্পিতা পাল তার স্ত্রী। ত্রিসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় তাদের একমাত্র সন্তান। রাজনীতির ডাক আসলেও, তিনি নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রেখেছেন। পর্দার পরিচালকের স্বাদ, এখনো অপূর্ণ থেকে গেছে।

[ আরো পড়ুন ] Lata Mangeshkar: সুর সম্রাজ্ঞী লতা মঙ্গেশকার

বাবা বিশ্বজিৎ পরিচালিত “ছোট্ট জিজ্ঞাসা” ছবিতে প্রসেনজিৎ শিশুশিল্পী হিসাবে প্রথম অভিনয় করেন ১৯৬৮ সালে। আর ১৯৮৩ সালে “দুটি পাতা” ছবিতে প্রথম নায়ক হিসাবে তার আত্মপ্রকাশ ঘটে । ১৯৮৭ সালের “অমর সঙ্গী” তার সবথেকে জনপ্রিয় ছবিগুলির মধ্যে অন্যতম। বাংলা সিনেমায় প্রায় সকল পরিচালকের ছবিতে তিনি সুনামের সাথে বিভিন্নধারায় অভিনয় করেছেন। তপন সিনহা, বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত, তরুণ মজুমদার, শক্তি সামন্ত, গৌতম ঘোষ, প্রভাত রায়, ঋতুপর্ণ ঘোষ, সৃজিত মুখার্জী, অঞ্জন চৌধুরী, শিবপ্রসাদ-নন্দিতা, হরনাথ চক্রবর্তী, স্বপন সাহা প্রভৃতি পরিচালকের সাথে কাজ করেছেন।

১৯৮৯ সালে ডেভিড ধাওয়ানের পরিচালনায় “আঁধিয়া” ও ১৯৯১ সালে মেহুল কুমারের পরিচালনায় “মিত মেরে মন কে” বলে দুটি হিন্দি ছবিতে নায়ক হিসাবে অভিনয় করেন। ঋতুপর্ণ ঘোষ পরিচালিত উনিশে এপ্রিল, উৎসব , চোখের বালি, দোসর, খেলা এবং দ্য লাস্ট লিয়র ছবিতে অসাধারণ অভিনয় করেছেন। “দ্য লাস্ট লিয়র‘ একমাত্র ইংরেজি ছবি যেখানে তিনি অমিতাভ বচ্চনের সাথে অভিনয় করেন। লালন, কাকাবাবু, এন্টোনি ফিরিঙ্গি, সুভাষ বসু প্রভৃতি নানা বর্ণময় চরিত্রে তিনি মন জয় করেছেন। দশ-বারো বছর তিনি দিনে দু’ঘণ্টা ঘুমাতেন। শুটিং করতেন আঠেরো ঘণ্টা। এখনো রাতে ফিরে দু’-আড়াই ঘণ্টা জিম করে একটা সিনেমা দেখেন। আগামীতে আরও ভালো ছবির অপেক্ষায় থাকবে অগণিত ভক্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *