ED Files Money Laiundering Case Against Tablighi Jamaat Chief Maulana Saad

Tablighi Jamaat Chief: মৌলানা সাদের বিরুদ্ধে ইডির মামলা

ভারতবর্ষ

তবলিঘি জামাত প্রধান (Tablighi Jamaat Chief) মৌলানা সাদ। এবার বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতির মামলা দায়ের করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি। যত …

দেশের করোনা সংক্রমণে বারবার তার নামটাই ভেসে উঠেছে। লুকোচুরি খেলাও জারি ছিল। অবশেষে আইসোলেশনে থাকার নিশ্চয়তা পায় দিল্লি প্রশাসন। তিনি বলেছিলেন, “মসজিদ হল মৃত্যুর জন্য সবথেকে পবিত্র জায়গা। আমার অনুগামীদের কোনও ক্ষতি করোনাভাইরাস করতে পারবে না।” তিনি হলেন তবলিঘি জামাত প্রধান (Tablighi Jamaat Chief) মৌলানা সাদ। এবার বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতির মামলা দায়ের করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সাদকে ইডি অফিসে জেরার জন্য হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মার্চ মাসের মাঝামাঝি দিল্লির নিজামুদ্দিন এলাকার একটা মসজিদে জমায়েত ঘিরে গোটা দেশের ৩০০০-এর বেশি জামাত সদস্য জড়ো হয়েছিল।

কেন্দ্রের তালিকায় ১৭০টি ‘হটস্পট’ – আরও জানতে ক্লিক করুন …

তাদের নিজামুদ্দিন বস্তিতে একটা ছ’তলা বাড়িতে রাখা হয়েছিল। সেই জমায়েতকে কেন্দ্র করে, আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে মৌলানা সাদের বিরুদ্ধে। জমায়েতে নিষেধাজ্ঞার থাকা সত্বেও নিজামুদ্দিনের ঘটনায় মৌলানা সাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে আগেই। এবার তাতে ৩০৪ ধারা সংযোজন করা হল। এর আগে এই জমায়েত ঘিরে মৌলানা সাদ-সহ সাতজনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছিল দিল্লি পুলিশ। এই জমায়েত ভারতে করোনা সংক্রমণের প্রধান ও বলবান হটস্পট হয়ে ওঠে। এই জামাত সদস্যদের থেকেই গোটা দেশে করোনা সংক্রমণের মাত্রা অনেক বেড়ে গিয়েছে বলে জানায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। তবে তবলিগি জামাতের ধর্মীয় জমায়েতের পর থেকেই নিখোঁজ ছিলেন ৫৬ বছরের মৌলনা সাদ।

পাকিস্তানেও রোষের মুখে তবলিঘি জামাত – আরও জানতে ক্লিক করুন …

মৌলানা সাদের আইনজীবী তউসিফ খান জানিয়েছেন, করোনা সংক্রামকদের সংস্পর্শে আসায় সাদ ১৪ দিনের ‘‌সেলফ কোয়ারেন্টিনে আছেন। ইডির নোটিস প্রসঙ্গে তিনি স্পষ্ট ভাবে জানান, ‘এই মুহূর্তে ১৪ দিনের সেলফ কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন মৌলানা সাদ। তার কোয়ারেন্টিন পিরিয়ড শেষ হলেই তদন্তে যোগ দেবেন তিনি।’‌ তিনি আরো জানান, মৌলানা ফেরার বা নিখোঁজ একথা একেবারে ভিত্তিহীন। মৌলানা সাদ ছাড়াও, এফআইআরে নাম আছে জিশান, মুফতি শেহজাদ, এম সফি, ইউনুস, মহম্মদ সলমন, এবং মহম্মদ আশরাফের। এখন তিনি বলছেন, “এখন বিশ্বজুড়ে যা হচ্ছে তা মানুষের পাপের ফল। আমাদের ঘরে থাকতে হবে। এই একটা উপায়েই আমরা আল্লাহর রাগকে থামাতে পারব। ডাক্তারদের পরামর্শ মানুন। প্রশাসন যা বলছে শুনুন। তাই আপনারাও কোয়ারেন্টাইনে থাকুন। এটা ইসলাম বা শরিয়তের বিরুদ্ধে নয়।”

চীনের বিমান নামল আসামে – আরও জানতে ক্লিক করুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *