Farmers will Get Money in Their Bank Account Under PM Kisan Samman Nidhi Yojana

বড়োদিনে পিএম কিসান প্রকল্পে ১৮,০০০ কোটি টাকা

ভারতবর্ষ

এদিন প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি প্রকল্পের (PM Kisan Samman Nidhi) আওতায় থাকা দেশের ৯ কোটি কৃষকদের ব্য়াঙ্ক অ্য়াকাউন্টে ১৮ হাজার …

নিজস্ব সংবাদদাতা: দিল্লির কৃষক আন্দোলন চরণ অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারকে। কিছুতেই আলোচনায় সমাধান সূত্র বার হচ্ছে না। গোটা দেশ থেকে কমবেশি বিরোধিতার সুর বেজে উঠেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে বড়োদিনে সামনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আসলে তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে কৃষক বিদ্রোহের প্রেক্ষাপটে আগামীকাল বড়দিনে ৬ রাজ্য়ের কৃষকদের সঙ্গে কথা বলবেন মোদী। এদিন প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি প্রকল্পের (PM Kisan Samman Nidhi) আওতায় থাকা দেশের ৯ কোটি কৃষকদের ব্য়াঙ্ক অ্য়াকাউন্টে ১৮ হাজার কোটি টাকা ডিজিট্য়াল মাধ্য়মে জমা করা হবে। দিল্লি সীমানায় কৃষকদের আন্দোলনের আবহে এই সিদ্ধান্ত অবশ্যই উল্লেখযোগ্য।

Farmers will Get Money in Their Bank Account Under PM Kisan Samman Nidhi Yojana
Farmers will Get Money in Their Bank Account Under PM Kisan Samman Nidhi Yojana

আগামীকাল ২৫শে ডিসেম্বর, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর জন্মদিন। সেদিন দেশের ৯ কোটি কৃষকের সঙ্গে আলাপ জমাবেন মোদী। প্রধানমন্ত্রীর দফতর সূত্রে জানা যাচ্ছে, ‘দেশের ৬টি রাজ্যের কৃষকদের সঙ্গে কথা বলবেন নরেন্দ্র মোদী। কৃষকরা তাদের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নেবেন। কৃষকস্বার্থে সরকারের যোজনাগুলির কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।’ গত বুধবার ৪৭২টি কৃষক সংগঠনের প্রতিনিধিরা বৈঠকের পরে সরকারের আলোচনায় বসার প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। তারা জানান, ‘কৃষক সংগঠনগুলিকে বদনাম করতে চাইছে কেন্দ্রীয় কেন্দ্র। শান্তিপূর্ণ ভাবে যে সামগ্রিক আন্দোলন চলছে, তাকে এলাকাভিত্তিক বলে দাবি করা হচ্ছে।’

[ আরও পড়ুন ] আমেরিকার সর্বোচ্চ পুরস্কারে মোদী – লিজন অফ মেরিট

যদিও এই কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে অনড় দেশের অগণিত কৃষকরা। দিল্লি সীমানায় কৃষকদের বিক্ষোভ অব্য়াহত। ৩২টি কৃষক ইউনিয়নের প্রধানরা অনশনে বসেন। একাধিকবার সরকারের সঙ্গে কৃষকরা আলোচনাতে বসলেও সেই জট কাটেনি। ফলে কৃষকদের ক্ষোভ মেটাতে নতুন করে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছে সরকার। কৃষকদের বোঝাতে দেশজুড়ে ১০০টি সাংবাদিক বৈঠক ও ৭০০টি সভা করার পরিকল্পনা নিয়েছে কেন্দ্র। একই সাথে বিলি করা হবে কৃষিমন্ত্রীর খোলা চিঠি। রাষ্ট্রীয় কিসান মহাসঙ্ঘের সভাপতি কাক্কার জানান, “এই আইন এনে কেন্দ্র দেশকে পঙ্গু করতে চায়।’’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *