India becomes a non permanent member of UN security council

রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে অস্থায়ী সদস্য ভারত

ভারতবর্ষ

বিশ্ব রাষ্ট্রসংঘে নিরাপত্তা পরিষদের (UN security council) নির্বাচন ছিল। সেখানে ভারত কার্যত বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অস্থায়ী সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। পাশাপাশি …

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিশ্ব রাষ্ট্রসংঘে নিরাপত্তা পরিষদের (UN security council) নির্বাচন ছিল। সেখানে ভারত কার্যত বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অস্থায়ী সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। পাশাপাশি মেক্সিকো, আয়ারল্যান্ড এবং নরওয়েও সদস্যপদ পেয়েছে। রাষ্ট্রসংঘের ১৯৩ সদস্যের দেশকে আরও একটি শূন্য আসন আছে। সেগুলি পূরণের জন্য আজ বৃহস্পতিবারও ভোটগ্রহণ পর্ব চলবে। এই ভোটাভুটিতে ভারতের পক্ষে পড়েছে ১৮৪ টি ভোট।

United Nations Security Council (UNSC)
United Nations Security Council (UNSC)

তবে মাত্র আটটি ভোট ভারতকে সদস্য হিসেবে নির্বাচনের বিরোধিতায় পড়েছে। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় আন্তর্জাতিক মহলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মোদী জানা, “নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের সদস্যপদের জন্য আন্তর্জাতিক মহল অভূতপূর্ব সমর্থন করেছে। তার জন্য আমি গভীরভাবে কৃতজ্ঞ। ভারত বিশ্ব শান্তি, সহনশীলতা এবং ন্যায় প্রচারের জন্য সব সদস্য দেশের সঙ্গে কাজ করবে।”

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শুক্রবার সর্বদল বৈঠক ডাকলেন – আরও জানতে ক্লিক করুন …

১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য পাঁচটি দেশ। এরা হলো আমেরিকা, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স ও ব্রিটেন। বাকি দশটি আসন রয়েছে অস্থায়ী সদস্য দেশগুলির জন্য। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের দেশগুলিকে দু’বছরের অস্থায়ী সদস্যপদ দেওয়ার জন্য প্রত্যেক বছর নির্বাচন হয়। আটবারের জন্য ভারত এবার আবার রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য মনোনীত হয়েছে।

রাষ্ট্রসঙ্ঘে কাশ্মীর নিয়ে লড়াই – পাকিস্তানে ফিরলো দুই কর্মী – আরও জানতে ক্লিক করুন …

আগামী ২০২১ এবং ২০২২ সাল গুরুত্বপূর্ণ এই দায়িত্ব সামলাবে ভারত। ভারত ছাড়াও আরও ৯টি দেশ আগামী ২ বছরের জন্য রাষ্ট্রসংঘের অস্থায়ী সদস্যপদ পাবে। বর্তমানে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে অস্থায়ী সদস্য পদে আছে ১০টি দেশ। সেগুলি হল, পোল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, বেলজিয়াম, ডমিনিকান রিপাবলিক, কোতে দ্য ভঁয়ে, ইকোয়েটোরিয়াল গিনি, জার্মানি, ইন্দোনেশিয়া, কুয়েত, পেরু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *