India celebrates 50th Vijay Diwas in 2020

বিজয় দিবসের ৫০ বছর – দেশনায়কদের কুর্নিশ মোদীর

ভারতবর্ষ

যুদ্ধে পাকিস্তানকে পর্যুদস্ত করার দিনটিকে বিজয় দিবস (50th Vijay Diwas) হিসেবে পালন করে ভারত। আর সেই দিনেই জন্ম হয় বাংলাদেশের।

নিজস্ব সংবাদদাতা: আজ বিজয় দিবসের পঞ্চাশ বছর পূর্তি। আজ সেই ভারত-পাক যুদ্ধে শহিদদের স্মরণ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। ১৯৭১ সালের ১৩ই ডিসেম্বর, পাক ফৌজকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন স্যাম মানেকশ। যুদ্ধে পাকিস্তানকে পর্যুদস্ত করার দিনটিকে বিজয় দিবস (50th Vijay Diwas) হিসেবে পালন করে ভারত। আর সেই দিনেই জন্ম হয় বাংলাদেশের। সেই বছর এই দিনেই ৯৩ হজার সেনা নিয়ে ভারতীয় বাহিনীর সামনে আত্মসমর্পণ করেছিলেন পাক বাহিনীর প্রধান জেনারেল নিয়াজি। এরপর ৯৩ হাজার পাক সেনা অস্ত্র নামিয়ে রেখেছিল।

আজ দিল্লির জাতীয় যুদ্ধ স্মারকে ‘স্বর্নিম বিজয় মশাল‘ জ্বালান মোদী। ১৯৭১-এর যুদ্ধে একদিকে ছিল নিয়াজির পাক সেনা আর অন্যদিকে ছিল বাংলাদেশের মুক্তিবাহিনী ও ভারতীয় সেনা।

India celebrates 50th Vijay Diwas in 2020
India celebrates 50th Vijay Diwas in 2020

আজ অমর জওয়ান জ্যোতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপনে ছিলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত ও তিন সেনাবাহিনীর প্রধান। আজকের এই বিশেষ দিনে স্বর্নিম বিজয় বর্ষ লোগোর উন্মোচন করেন রাজনাথ সিং। ১৯৭০ সালে আওয়ামি লিগ অবিভক্ত পাকিস্তানে ভোটে জেতে। কিন্তু তাদের জয়কে সেই সময় একেবারেই স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি। মুজিবর রহমান সেই পরিস্থিতিতে দেশব্যাপী ধর্মঘট ডাকেন। এরপর মুজিবরকে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে লাহোরে জেলে পাঠানো হয়। ৩রা ডিসেম্বর পাক বায়ু সেনা উত্তর ও পশ্চিম ভারতের একাধিক এয়ার বেসে আক্রমণ করে। আক্রমণকে প্রতিহত করে ভারত।

[ আরও পড়ুন ] ভারতীয় সেনাবাহিনী টানা ১৫ দিন যুদ্ধের অস্ত্র মজুত করছে

পূর্ব পাকিস্তানে ফৌজ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এর দায়িত্ব ছিলেন স্যাম বাহাদুর। একাধিক শহর পাক সেনার হাতছাড়া হয়। ১৪ ডিসেম্বরের পর স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল আত্মসমর্পণ করা ছাড়া পাকিস্তানের আর কোনো উপায় নেই। ৯৩ হাজার পাক সেনা বিনা শর্তে হার স্বীকার করে নেন। স্বাধীন বাংলাদেশের, ক্ষমতায় আসীন হন বঙ্গবন্ধু মুজিবর রহমান। আজ বাংলাদেশ থেকে এই বিশেষ অনুষ্ঠানে শামিল হতে এসেছেন ৩০ জন মুক্তিযোদ্ধা। এর ফলে ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ককে আরও সুদৃঢ় করবে। বিজয় দিবসের সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষের এই অনুষ্ঠান, এইসময় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

[ আরও পড়ুন ] কলকাতাতে তৈরি এই শক্তিশালী ভারতীয় যুদ্ধজাহাজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *