Indian Army to stock weapons and ammunition for 15 days of intense war

ভারতীয় সেনাবাহিনী টানা ১৫ দিন যুদ্ধের অস্ত্র মজুত করছে

ভারতবর্ষ

দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের নির্দেশ জানাচ্ছে, এক টানা ১৫ দিন যুদ্ধ করার মতো রসদ (Stock weapons and ammunition) যেন মজুত …

নিজস্ব সংবাদদাতা: সংক্রমণের আবহ থাকলেও সীমান্তের অস্থিরতা কমেনি। চীন ও পাকিস্তান পালা করে যুদ্ধের দামামা বাজছে। তৈরী থাকতে হচ্ছে ভারতকে। দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের নির্দেশ জানাচ্ছে, এক টানা ১৫ দিন যুদ্ধ করার মতো রসদ (Stock weapons and ammunition) যেন মজুত করে রাখা হয়। মন্ত্রীদের চাপ ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের নির্দেশের পরে জল্পনা তৈরি হয়েছে, এবার কি তবে বড় কোনও পদক্ষেপের পথে যেতে চলেছে ভারতীয় সেনা। লাদাখ বিষয়ে পরিষ্কার কিছু হয় নি। একই জায়গাতে আছে ভারত ও চীন। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা অঞ্চলে সেনা প্রত্যাহার করছে না চীন। অন্যদিকে সীমান্তে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করছে পাকিস্তান।

Indian Army to stock weapons and ammunition for 15 days of intense war
Indian Army to stock weapons and ammunition for 15 days of intense war

ভারত এইমুহূর্তে দেশ-বিদেশ থেকে প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকার প্রয়োজনীয় অস্ত্র কিনতে পারবে। সেনা বাহিনী সেই ক্ষমতার ব্যবহার করবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। এই মুহূর্তে দেশের টানা ১০ দিন যুদ্ধ করার মতো অস্ত্র রয়েছে। প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞদের একাংশের মনে করছে, যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি হলে ভারতকে শুধু চীনের বিরুদ্ধে লড়তে হবে, এমন নয়। পাকিস্তানও পশ্চিম সীমান্তে সক্রিয় হয়ে উঠবে। ফলে ভারতকে একসাথে দুই শক্তিশালী প্রতিপক্ষের মোকাবিলা করতে হবে। তাই কেন্দ্র এই সিদ্ধান্তটি নিয়েছে। খুব সম্প্রতি, দেশের সেনাবাহিনীকে এই অস্ত্র সংগ্রহের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। অনেক দিন আগে অবশ্য টানা ৪০ দিন যুদ্ধ করার মতো মজুত রাখার অনুমতি ছিল বাহিনীর।

[ আরও পড়ুন ] কলকাতাতে তৈরি এই শক্তিশালী ভারতীয় যুদ্ধজাহাজ

২০১৬ উরি হামলার সময় এই নিয়মে সমস্যায় পড়ে দেশের সেনাবাহিনী। তৎকালীন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পারিক্কর, তিন বাহিনীকে আরও বেশি আর্থিক ক্ষমতা দেন। অস্ত্র মজুত করার বরাদ্দ ১০০ কোটি থেকে বাড়িয়ে ৫০০ কোটি টাকা করা হয়। এর সাথে জরুরি পরিস্থিতিতে সমরাস্ত্র কিনতে সেনাবাহিনীর জন্য আরও ৩০০ কোটি টাকার অর্থ বরাদ্দ করা হয়। সেনাবাহিনী এখন আধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র, আগ্নেয়াস্ত্র সহ বিভিন্ন সমর সরঞ্জাম কিনছে। এবার যুদ্ধের কথা ভেবে সেনাবাহিনীকে ১৫ দিনের জন্য রসদ মজুত করার ক্ষমতা দেওয়া হল। সেনার অস্ত্রভাণ্ডার বাড়ানোর সিদ্ধান্তটি যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ।

[ আরও পড়ুন ] বাংলা-সহ একাধিক রাজ্যে জারি হাই অ্যালার্ট – নাশকতার ছক !!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *