NIA causes tension to Kerala CM Vijayan in Kerala Gold Smuggling Case

কেরলে জঙ্গিদের মদত দিতে সোনা পাচার – বেকায়দায় বিজয়ন

ভারতবর্ষ

কেন্দ্রীয় তদন্তকারী আধিকারিকরা মনে করছেন, গত এক বছরে অন্তত ২৩০ কেজি সোনা পাচার (Kerala Gold Smuggling) হয়েছে কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে।

নিজস্ব সংবাদদাতা: এটি জম্মু-কাশ্মীর বা লাদাখ নয়। ভারতের দক্ষিণের রাজ্যে কেরল। করোনার আবহে সেখানে বিদেশ থেকে সোনা উড়ে আসছে। পৌঁছে যাচ্ছে একাধিক জঙ্গিদের আস্তানায়। সোনা পাচার কাণ্ডে চাঞ্চল্যকর দাবি সামনে এনেছে NIA। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী আধিকারিকরা মনে করছেন, গত এক বছরে অন্তত ২৩০ কেজি সোনা পাচার (Kerala Gold Smuggling) হয়েছে কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে। অন্তত ১৩টি কনসাইনমেন্ট আমিরশাহী থেকে ভারতে এসেছে। কূটনৈতিক রক্ষাকবচ থাকায় সেগুলি চেকিং হয়নি। কিছু ব্যাগে ৭০ কেজি পর্যন্ত সোনা পাচার হয়েছে।

Swapna Suresh with CM Vijayan
Swapna Suresh with CM Vijayan

সংযুক্ত আরব আমিরাশাহি উপ-দূতাবাসের মাধ্যমে কেরলের তিরুঅনন্তপুরমে পাচার হওয়া সোনার পরিমাণ একেবারে৩০ কেজি। এই ঘটনায় ওই ব্যক্তি দুবাইয়ে গ্রেফতার হয়েছেন। খুব তাড়াতাড়ি তাকে ভারতে প্রত্যর্পণ করা হতে পারে। পাচারকাণ্ডে ধৃত স্বপ্না সুরেশের মোবাইলের কল লিস্ট থেকে কেরলের এক মন্ত্রীর নাম জানা গেছে । ওই গুণী মন্ত্রীকে শীঘ্রই জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে। কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের বাম সরকারকে ঘোর অস্বস্তিতে ফেলেছে।

[ আরও পড়ুন ] ভারত বিশ্ব গণতন্ত্র সূচকে ১০ ধাপ নীচে

ইতিমধ্যে এই পাচার চক্রে একাধিক প্রথম সারির সরকারি আধিকারিকের নাম সামনে এসেছে। কেরলের সোনা পাচার শুরু হয় গত ৪ঠা জুলাই। সেদিন সংযুক্ত আরব আমিরশাহি থেকে বেআইনিভাবে ৩০ কেজি সোনা কেরলের তিরুবনন্তপুরম বিমানবন্দরে পৌঁছয়। কেরালার আবগারি দপ্তর সেই সোনা বাজেয়াপ্ত করে। জানা যাচ্ছে, কোনও গোপন কূটনৈতিক চ্যানেলকে কাজে লাগিয়ে আমিরশাহী থেকে কোটি কোটি টাকা সোনা কেরলে এনেছে পাচারকারীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *