Panel of Maharashtra Govt Decides to Release 17000 Prisoners due to Coronavirus Outbreak

১৭০০০ বন্দি মহারাষ্ট্রের জেল থেকে মুক্তি

ভারতবর্ষ

এই রাজ্যে এই ধরনের মোট ৩৫ হাজার ২৩৯ জন বন্দির মধ্যে ১৭ হাজারের বেশিকে বন্দিকে জেলগুলো থেকে মুক্তি (Release 17000 Prisoners) দেওয়ার …

৫০ দিন অতিক্রম করলো দেশের লকডাউন। সবথেকে সমস্যার মঘ্যে আছে মহারাষ্ট্র। সংক্রমণের সাথে মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে সেখানে। এরই মধ্যে সংশোধনাগারে ভাইরাসের প্রকোপ প্রকট হচ্ছে। সেই বন্দিদের স্বস্তি দিতে মহারাষ্ট্রের উচ্চ ক্ষমতাপ্রাপ্ত কমিটি রাজ্যের ৫০ শতাংশ বিচারাধীন বন্দিকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল। জানা যাচ্ছে , এই রাজ্যে এই ধরনের মোট ৩৫ হাজার ২৩৯ জন বন্দির মধ্যে ১৭ হাজারের বেশিকে বন্দিকে জেলগুলো থেকে মুক্তি (Release 17000 Prisoners) দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিটি।

মোদির ২০ লক্ষ কোটি – মমতা ভাঙলেন রেড জোনকেআরও জানতে ক্লিক করুন …

জেলে নতুন করে করোনা:

কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, মহারাষ্ট্রের জেলে বন্দি আছে ৩৫,২৩৯ জন মানুষ। এদের প্রায় অর্ধেককেই প্যারোল বা জামিনে মুক্তি দেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মুম্বই আর্থার জেলে বন্দি ও কর্মীদের মধ্যে করোনার আক্রমণ ক্রমে বেড়ে যাচ্ছে। তাই জরুরি ভিত্তিতে এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। মহারাষ্ট্রের আর্থার রোড জেলে নতুন করে আরও ১৮৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মুম্বইয়ের বাইকুল্লার মহিলা সংশোধনাগারের অবস্থা খুব খারাপ।

লাদাখ সীমান্তে চীনা কপ্টার – পাকিস্তান যুদ্ধের জিগির তুললোআরও জানতে ক্লিক করুন …

সংশোধনাগারগুলিতে করোনার ঝুঁকি:

প্রয়োজনের তুলনায় বেশি বন্দি থাকায়, সেখানকার সংশোধনাগারগুলিতে করোনার ঝুঁকি অত্যন্ত বেশি হয়েছে। এথেকে রেহাই পেতে একটি উচ্চ ক্ষমতাপ্রাপ্ত কমিটি গঠন করেছে মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকার। সেই কমিটিতে আছেন বোম্বে হাইকোর্টের বিচারপতি এ এ সৈয়দ, মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র দফতরের অতিরিক্ত মুখ্যসচিব সঞ্জয় চাহান্দে, রাজ্যের ডিজিপি এস এন পান্ডে। কমিটি জানিয়েছে, ‘MPID আইন-সহ বিশেষ আইনে দোষী ও অভিযুক্তরা মুক্তির জন্য আবেদন করতে পারবে না। শুধুমাত্র কয়েকজন বন্দির ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *