PM Modi visits Ladakh with strong message to protect Indian territory from China

লাদাখে পৌঁছলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

ভারতবর্ষ

পরিস্থিতি বুঝে লাদাখ সীমান্তে পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Modi visits Ladakh)। সেই সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের পর গোটা পরিস্থিতি খতিয়ে …

নিজস্ব সংবাদদাতা: সীমান্তের পরিস্থিতি যথেষ্ট উদ্বেগের। ভাইরাসের চাপের মধ্যে প্রবল হয়ে উঠেছে সীমান্ত সমস্যা। প্রতিদিন চীন ও পাকিস্তান ক্ষমতার জাহির করতে মরিয়া। ভারত ঠান্ডা মাথায় সমাধানে নেমেছে। পরিস্থিতি বুঝে লাদাখ সীমান্তে পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Modi visits Ladakh)। সেই সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের পর গোটা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে লে-তে গেলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর দফতরের পক্ষ থেকে জানা যাচ্ছে, বর্তমানে তিনি “নিমু” এলাকায় রয়েছেন। একদিনের সফরে লাদাখ যাচ্ছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও সেনাপ্রধানও। লাদাখে গিয়ে চীন সীমান্তে থাকা সেনা জওয়ান এবং অফিসারদের সঙ্গে কথা বলবেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী ৷

PM Modi visits Ladakh with strong message to protect Indian territory from China
PM Modi visits Ladakh with strong message to protect Indian territory from China

তিন বাহিনীর প্রধান সিডিএস জেনারেল বিপিন রাওয়াত এবং স্থলবাহিনীর প্রধান মনোজ মুকুন্দ নরবণেকে সঙ্গে নিয়ে লাদাখ পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী। তার এই আচমকা সফর অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। গালওয়ানের সংঘর্ষে যে জওয়ানরা জখম হয়েছিলেন, তাদের সাথে প্রধানমন্ত্রী আগেই লেহতে দেখা করেছেন।

[ আরও পড়ুন ] প্রিয়াংকাকে লোদী এস্টেটের বাংলো ছাড়ার নোটিস

গতকাল, বৃহস্পতিবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহের লাদাখ সফরের কথা ছিল। শেষ মুহূর্তে তা বাতিল হয়। চীনের সাথে আলোচনার প্রক্রিয়া এগোচ্ছে বলেই রাজনাথের সফর স্থগিত হয়েছে।

মোদী এখন সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১১,০০০ ফুট ওপরে, জ্যানস্কর রেঞ্জের দুর্গম এলাকাতে আছেন । লাদাখে তার সঙ্গে আছেন চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত এবং সেনাপ্রধান এমএম নারভানে। আজ শুক্রবার সন্ধ্যেতে ফিরে আসবেন প্রধানমন্ত্রী।
সাত সপ্তাহ ধরে গালওয়ান উপত্যকা বা পাংগং লেকের ফিঙ্গার পয়েন্ট থেকে সরেনি ড্রাগন সেনা।

[ আরও পড়ুন ] বাবা রামদেব-সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের

ফিঙ্গার ৪ থেকে আর ভারতীয় জওয়ানদের টহল দিতে দিচ্ছে না চীন। ফিঙ্গার ৪ পর্যন্ত এসে নির্মাণ কাজও শুরু করেছে চীন সেনা। বৃহত্তর সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে, সবকিছু দেখে নিতে চাইছেন প্রধানমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *