Pop Sensation Katy Perry on Child Trafficking in India and South Asia

Katy Perry on Child Trafficking: ভারতে শিশুপাচার

বিনোদন ভারতবর্ষ

কেটি পেরি ভারত এবং দক্ষিণ এশিয়ায় শিশু পাচারের (Katy Perry on Child Trafficking) বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য ব্রিটিশ এশিয়ান ট্রাস্ট-এর দূত …

ক্যাটি এলিজাবেথ হাডসন একজন আমেরিকান সঙ্গীত-শিল্পী, গীতিকার। ক্যালিফোর্নিয়ার সান্টা বারবারা শহরে পেরির জন্ম হয়। প্রখ্যাত এই মার্কিন পপ গায়িকা এবার একেবারে অন্য ভূমিকাতে। গায়িকা এলেন সমাজসেবায়। কেটি পেরি ভারত এবং দক্ষিণ এশিয়ায় শিশু পাচারের (Katy Perry on Child Trafficking) বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য ব্রিটিশ এশিয়ান ট্রাস্ট-এর দূত হিসেবে নির্বাচিত হতে চলেছেন। তবে শুধু ভারতেই নয়, গোটা দক্ষিণ এশিয়ায় প্রচার অভিযান চালাবেন কেটি। কেটি অবশ্য এর আগে থেকেই UNICEF-এর ইউনাইটেড নেশনস চিল্ড্রেন’স অর্গানাইজেশনের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে কাজ করছেন।

Pop Sensation Katy Perry on Child Trafficking in India and South Asia
Pop Sensation Katy Perry on Child Trafficking in India and South Asia

সম্প্রতি লন্ডনের ব্যাঙ্কোয়েটিং হাউসে দেখা করেছেন চার্লস এবং ডাচেস অফ কর্নওয়াল-এর সঙ্গে। রাজকুমারকে মঞ্চে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার সময় কেটি পেরি জানান, ‘আমি এখানে এসে ভয়ঙ্কর উত্তেজিত। কারণ আমি রয়্যাল হাইনেস এবং বিশেষকরে ভারতে শিশুদের জন্য তিনি যে সমস্ত কাজ করেছেন তার সবচেয়ে বড় অনুরাগী। আমার নিজের অভিজ্ঞতায় তিনি এক দয়ালু হৃদয়ের মানুষ।’ ২০০৭ সালে পেরি ক্যাপিটল মিউজিক গ্রুপের সাথে চুক্তি করেন এবং তার নাম পরিবর্তন করে ক্যাটি পেরি রাখেন। এসময় তিনি ইন্টারনেটে তার প্রথম একক সঙ্গীত “ইউ’র সো গে” প্রকাশ করেন। এই গান তাকে কিছুটা খ্যাতি এনে দিলেও গানটি চার্টে অন্তর্ভুক্ত হয়নি। ২০০৮ সালে তিনি সর্বাধিক খ্যাতি অর্জন করেন তার দ্বিতীয় একক সঙ্গীত প্রকাশের মাধ্যমে।

পেরির অ্যাম্বাসাডার হওয়ার প্রেক্ষিতে প্রিন্স চার্লস বলেছেন, ‘আমাকে যেভাবে তিনি উপস্থিত অভ্যাগতদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিলেন, সেই জন্য আমি তাঁর কাছে অত্যন্ত কৃতজ্ঞ। তিনি বলেন, “শিশু পাচার রুখতে ব্রিটিশ এশিয়ান ট্রাস্টের নয়া স্ট্র্যাটেজির কথা জানতে পেরে আমি মুগ্ধ। এবং সেই সঙ্গে এমন এক অভিনব উদ্যোগের অংশীদার হওয়ার সুযোগ পেয়ে অভিভূতও বটে! আর ভারত আমার কাছে ভীষণই স্পেশ্যাল। তাই সেই দেশে শিশু পাচারের মতো জঘন্য অপরাধ রুখতে পারার সুযোগ পাওয়ায় নিজেকে ভাগ্যবান বলেও মনে করছি।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *