Son of Hurriyat Chairman and Hizbul Mujahideen terrorist killed in Srinagar encounter

শ্রীনগরে মৃত্যু ২ হিজবুল জঙ্গির, পুলিশ ও CRPF যৌথ অভিযান

ভারতবর্ষ

গুলির লড়াইয়ে খতম হল তেহরিক-ই-হুরিয়তের চেয়ারম্যান মহম্মদ আশরাফ সেরাইয়ের ছেলে-সহ দুই হিজবুল মুজাহিদিন (Hizbul Mujahideen) জঙ্গি।

আবার উত্তপ্ত কাশ্মীর। লকডাউনকেই নিশানা করেছে পাক জঙ্গি বাহিনী। কাশ্মীরে আবার নাশকতার ছক বানচাল করলো দেশের নিরাপত্তারক্ষীরা। গুলির লড়াইয়ে খতম হল তেহরিক-ই-হুরিয়তের চেয়ারম্যান মহম্মদ আশরাফ সেরাইয়ের ছেলে-সহ দুই হিজবুল মুজাহিদিন (Hizbul Mujahideen) জঙ্গি।

অফিসে কর্মীদের জন্য নতুন নির্দেশিকা জারি – আরও জানতে ক্লিক করুন …

শ্রীনগরের নাওয়াকদল এলাকার কানেমাজারে, উভয়পক্ষের গুলির লড়াইয়ে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের এক কনস্টেবলেরও মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া এই ঘটনায় জখম হয়েছেন একজন সিআরপিএফ জওয়ান ও পুলিশকর্মী-সহ চারজন। প্রথমে গুলির লড়াই শুরু হয়েছিল শ্রীনগরে।

পুলিশ এবং CRPF -এর যৌথ অভিযান

গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ এবং সিআরপিএফ-এর যৌথ অভিযান শুরু হয়েছিল শ্রীনগরের নাওয়াকাদাল এলাকায়। এই এলাকায় লুকিয়ে ছিল কুখ্যাত হিজবুল মুজাহিদিনের দু’জন কুখ্যাত জঙ্গি। সেই সূত্র ধরেই নির্দিষ্ট এলাকায় এনকাউন্টার চালান নিরাপত্তারক্ষীরা। জঙ্গিদের উপস্থিতি বুঝতে পেরেই এলোপাথাড়ি গুলি ছুড়তে শুরু করে জঙ্গিরা।

আমেরিকা ভেন্টিলেটরের সাথে ১৬১ জন অপরাধী পাঠাচ্ছে – আরও জানতে ক্লিক করুন …

হুরিয়তের চেয়ারম্যান:

দক্ষতার সাথে জবাব দেয় ভারতীয় সেনাদল। এরফলে সাফল্য আসে। তবে সেনার গুলিতে মৃত সন্ত্রাসীদের মধ্যে একজনের নাম জুনায়েদ শেহরাই বলে জানা গেছে। এই জুনায়েদই কট্টরপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা তথা তেহরিক-ই-হুরিয়তের চেয়ারম্যান আশরাফ শেহের পুত্র বলে জানা যাচ্ছে।

Son of Hurriyat chairman Ashraf Sehrai
Son of Hurriyat chairman Ashraf Sehrai

পাঁচ ঘণ্টা ধরে লড়াই:

এছাড়া আর এক জঙ্গির নাম তারিক আহমেদ শেখ। সে পুলওয়ামার বাসিন্দা বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে। সেখান দুটি বাড়ি ঘিরে ফেলে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। একটানা পাঁচ ঘণ্টা ধরে লড়াই চলার পরেও সেই দুটি বাড়ির মধ্যে ঢুকতে পারেননি নিরাপত্তারক্ষীরা। এরপর গ্রেনেড ছুঁড়ে বাড়ি ভাঙা হয় ও সফলতা আসে।

ভারতীয় বাহিনী ও পুলিশের এমন যৌথ উদ্যোগ তো আমরা প্রায়ই দেখে থাকি । কিন্তু এবার রাজনৈতিক নেতার পুত্র জড়িত থাকলেও, বিন্দু মাত্র দ্বিধা না করে তারা একশান নেয় । দেশবাসী গর্বিত ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *