Tej Bahadur Yadav Can Kill Modi If He Gets Rs 50 Crore

মোদিকে খুন করব ৫০ কোটি পেলে, বললেন তেজবাহাদুর যাদব ৷

ভারতবর্ষ

Tej Bahadur Yadav Can Kill Modi If He Gets Rs 50 Crore

তেজ বাহাদুর দাবি করেন, মোদির বিরুদ্ধে প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করে নিতে তাকে ৫০ কোটি টাকা অফার করা হয় ৷ তিনি রাজি না হওয়ায় খুনের হুমকি পান ৷

একটি ভিডিও ফুটেজ৷ দেশের ভোটের বাজারে সেটি এখন শোরগোল ফেলে দিয়েছে৷ ভিডিও ফুটেজে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে খুন করার হুমকি দেওয়া হয়েছে৷ ৫০ কোটি টাকা দেওয়া হলে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (Narendra Modi) খুন করতে পারেন। সদ্য প্রকাশিত একটি ভিডিও ফুটেজে এই কথা বলতে শোনা গিয়েছে সীমান্তরক্ষী বাহিনীর বরখাস্ত হওয়া জওয়ান তেজবাহাদুর যাদবকে (Tej Bahadur Yadav )।

যদিও সংবাদমাধ্যমের পক্ষে এই ভিডিও ফুটেজের সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি। ভিডিওটি দু’ বছর আগের বলে মনে করা হচ্ছে। তবে তেজবাহাদুর স্বীকার করেছেন যে প্রকাশিত ভিডিও ফুটেজে তিনিই ছিলেন। তাঁর অভিযোগ, ভোটের মরশুমে এধরনের ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পিছনে বড়সড় ষড়যন্ত্র রয়েছে৷

কিছুদিন আগেও তেজ বাহাদুর দাবি করেন, মোদির বিরুদ্ধে প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করে নিতে তাকে ৫০ কোটি টাকা অফার করা হয় ৷ তিনি রাজি না হওয়ায় খুনের হুমকি পান৷ শুধু তাকে নয়, তার ছেলেকেও প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়৷ চলতি লোকসভা নির্বাচনে বারাণসী কেন্দ্রে মনোনয়নপত্র পেশ করেছিলেন বরখাস্ত হওয়া বিএসএফ জওয়ান তেজবাহাদুর যাদব। কিন্তু কমিশন তেজবাহাদুরের মনোনয়নপত্র খারিজ করে দেয়।

কমিশনের ওই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে সোমবার সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করলেন তেজবাহাদুর। সেনা জওয়ানদের দেওয়া খাবারের মান নিয়ে অভিযোগ তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত একটি পোস্ট করেছিলেন তেজবাহাদুর। ঘটনার জন্য ২০১৭-য় তেজবাহাদুরকে বরখাস্ত করে বিএসএফ। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে সমাজবাদী পার্টির টিকিটে তেজবাহাদুর বারাণসী কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে প্রার্থী হন।

২০১৭ সালে সেনাবাহিনীকে নিম্নমানের খাবার দেয়ার অভিযোগ করে একটি ভিডিও করেন এই প্রাক্তন বিএসএফ জওয়ান৷ বিতর্কিত ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে শিরোনামে আসেন তিনি৷২৯ এপ্রিল তিনি সপার প্রার্থী হিসাবে দ্বিতীয়বার মনোনয়ন পেশ করেন। যদিও দ্বিতীয়বার পেশ করা হলফনামায় তেজবাহাদুর চাকরি থেকে বরখাস্ত হওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেননি।

কমিশন তেজবাহাদুরের মনোনয়ন বাতিল করতে গিয়ে জানায়, তাঁর দেওয়া দু’টি হলফনামার মধ্যে মিল নেই। এছাড়াও ভোটে লড়তে হলে বিএসএফের কাছ থেকে ‘নো অবজেকশন সার্টিফিকেট’ দেওয়া জরুরি ছিল। কিন্তু তেজবাহাদুর সেই শংসাপত্র জমা দেননি। তেজ বাহাদুর মোদির বিরুদ্ধে দাঁড়ানোয় একটু অস্বস্তিতে পড়েছে বিজেপি শিবির।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *