Kissing Techniques

বিশ্বায়নের “কিস ডে” – চুম্বনের প্রকারভেদ – Kissing Techniques

লাইফস্টাইল

আজ ১৩ই ফেব্রুয়ারী| বিশ্ব চুম্বন দিবস – বিপণনের ” কিস ডে” আমাদের দরজায় |

রবিঠাকুরের ভাষায় —

দুইটি তরঙ্গ উঠি প্রেমের নিয়মে / ভাঙিয়া মিলিয়ে যায় দুইটি অধরে / ব্যাকুল বাসনা দুটি চাহে পরস্পরে/ দেহের সীমায় আসি দুজনের দেখা/প্রেম লিখিতেছে গান কোমল আখরে/অধরেতে থরে থরে চুম্বনের খেলা|

চুম্বন হল দুই ঠোঁটের স্পর্শ দিয়ে কাউকে আদর করা বা স্নেহ প্রকাশ করা। সাধারণভাবে প্রেম, কাম, স্নেহ, অনুরাগ, শ্রদ্ধা, সৌজন্য অথবা শুভেচ্ছা প্রকাশ করতে অন্য কারো চিবুক, অধরোষ্ঠ, করতল, কপাল বা অন্য কোন অঙ্গে ঠোঁট স্পর্শ করাই চুম্বন।স্নেহ-ভালবাসা প্রকাশার্থে চুম্বন একটি সাধারণ প্রথা। আবার শয্যায় চুম্বন একটি গুরুত্বপূর্ণ শৃঙ্গার। বাৎস্যায়নের কামসূত্রে বিভিন্ন প্রকার চুম্বনের বর্ণনা পাওয়া যায়।

সংস্কৃত “চুম্বন” থেকে বাংলায় “চুমা”, “চুমু”, “চুমো” প্রভৃতি শব্দের উৎপত্তি প্রেমের খুব গুরত্বপূর্ণ রসায়ন হল কিস। একটা কিসেই ঘুঁচে যায় সব মিসকিসের দূরত্ব। একটা চুমুতেই মিটে যায় সব বৈষম্যের বিবাদ। আর তাই ভ্যালেনটাইন্স ডে-র আগের দিনটা খুব গুরুত্বপূর্ণ – কিস ডে। ফেব্রুয়ারির ৭ তারিখ থেকে শুরু হয়েছে ভালোবাসার সপ্তাহ, যা শেষ হবে ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসের মাধ্যমে। ভালোবাসা সপ্তাহে ৭ ফেব্রুয়ারি রোজ ডে, ৮ ফেব্রুয়ারি প্রোপোজ ডে, ৯ ফেব্রুয়ারি চকলেট ডে, ১০ ফেব্রুয়ারি টেডি ডে, ১১ ফেব্রুয়ারি প্রমিজ ডে, ১২ ফেব্রুয়ারি হাগ ডে পেরিয়ে আজ ১৩ ফেব্রুয়ারি ‘কিস ডে’।
একটি ভালোবাসার সম্পর্কের মধ্যে একটুকু ছোঁয়ার জন্য আকুল হয়ে উঠে মন। সেই ছোঁয়াটুকুর মধ্যে থাকে পরম মমতা ও বিশ্বস্ততা। প্রেমের সম্পর্কে অজস্র কথা সহজভাবে বুঝিয়ে দিতে পারে একটি আলতো চুমু। সাদা-কালো ঘোমটার আড়ালের পরকীয়ার চুম্বন তো বেশ আকর্ষণের|

  • কপালে আলতো চুমু সম্পর্কের গভীরতা এবং নির্ভরতা বোঝায়।
  • কানে চুমু বোঝায় প্রেমের সম্পর্কে আপনি কতটা প্যাশনেট।
  • ঘাড়ে চুমু খেলে বোঝায় প্রেমিক বা প্রেমিকা খুবই রোমান্টিক।
  • গালে চুমু ইঙ্গিত দেয় বন্ধুত্বের।
  • হাতের তালুতে চুমু বোঝায় আপনার পছন্দ।
  • প্রিয়জনের পায়ের তালুতে আলতো চুমু প্রলুব্ধতাকে নির্দেশ করে।
  • তেমনই কাঁধে খাওয়া চুমু বুঝিয়ে দেবে আপনার প্রিয়জনকে আপনি কতটা চান।
  • সবচেয়ে প্যাশনেট ভঙ্গিমায় চুমু হল লিপ-টু-লিপ কিস বা ওষ্ঠ চুম্বন। প্রেমের সম্পর্কে অন্য উচ্চতায় পৌঁছে দেয় এই ভঙ্গিমায় খাওয়া চুমু। গভীর মানসিক একাত্মতাকে নির্দেশ করে এই চুমুর ভঙ্গিমা।
  • সুতরাং আপনার চুমুর ছোঁয়ায় প্রিয়জনের মুখের নরম হাসিই বুঝিয়ে দেবে তার জীবনে আপনি কতটা গুরুত্বপূর্ণ।
    তবু বলবো লালমুখো পশ্চিমীদের বাণিজ্যের এই খোলামেলা চুম্বনের দিন উদযাপনে সামিল না হতে পারলে খুব ক্ষতি নেই| চুমুক দিন গরম চায়ের কাপে| আর একান্তই যদি চুম্বনের চুম্বকত্ব নিয়ে ভাবেন, তাহলে ফিরে যান স্মৃতির সরণি ধরে মায়ের কোলে| স্নেহ,ভালোবাসা, বিশ্বাস সব মিলবে সেই ফেলে আসা চুম্বনে|

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *