Remember Before and After Eating Rice

ভাত খাওয়ার ভালো-মন্দ – Remember Before and After Eating Rice !

লাইফস্টাইল

অনেকেই খাবার খাওয়ার সময় বা পরে কোমড়ের বেল্ট কিংবা কাপড় ঢিলা করে দেয়। এটা উচিত নয়।

ভাতের সাথে আম-বাঙালির এক নিত্য প্রেমের সুসম্পর্ক আছে| ঠান্ডা, গরম, বাসি – সে যাই হোক না কেন, তৃপ্তির উদ্গার মানেই ভাতে ভরেছে উদর| আতিথিয়তার আহার পর্ব মানেই সাদা ভাত| যদিও সারা বিশ্বের অধিকাংশ মানুষ বিভিন্ন পদ্ধতিতে ভাত খেয়ে থাকেন। তবে এশিয়া মহাদেশে প্রতিদিন ভাত খাওয়া লোকের সংখ্যা সবথেকে বেশি। বাঙালি সারাদিনে একবার ভাত খাবে না, সেটা একেবারেই অসম্ভব। ভাত উপকারী খাবার হলেও এমন কিছু বদঅভ্যাস রয়েছে যেগুলো আমাদেরকে সুস্থ রাখার বদলে আমাদের অসুস্থ করে তোলে।

Mead Day Meal Rice & Dal
Mead Day Meal Rice & Dal

যে সব অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে—-

১. পেট ভরে ভাত খাবার খাওয়ার পরেই অনেকে ফল খান। এটা একদম ঠিক নয়। কারণ এতে বেড়ে যায় এসিডিটি। ভাত খাওয়ার দু’এক ঘণ্টা আগে বা পরে ফল খাওয়া ভাল।

২. অনেকে ভাত খাওয়া শেষ করার সঙ্গে সঙ্গেই ধূমপান শুরু করে। এটা খুবই মারাত্মক অভ্যাস। চিকিৎসকরা বলেন, অন্য সময় ধূমপানের চাইতে খাবার খাওয়ার পর ধূমপান করলে তা ১০ গুণ বেশি ক্ষতিকর।

৩. ভাত খাবার গ্রহণের পরেই স্নান করবেন না। কারণ খাওয়ার পরেই স্নান করলে শরীরের রক্ত সঞ্চালন মাত্রা অনেক বেড়ে যায়। এর ফলে পাকস্থলীর চারপাশের রক্তের পরিমাণ বেড়ে যায়। ফলে খাবার হজমের সমস্যা হয়।

৪. অনেকেই খাবার খাওয়ার সময় বা পরে কোমড়ের বেল্ট কিংবা কাপড় ঢিলা করে দেয়। এটা উচিত নয়। কারণ কোমরের বেল্ট বা কাপড় ঢিলা করলে খুব সহজেই ইন্টেসটাইন (পাকস্থলি) থেকে রেক্টাম (মলদ্বার) পর্যন্ত খাদ্যনালীর নিম্নাংশ বেকে যেতে পারে বা পেঁচিয়ে যেতে পারে বা ব্লক হয়ে যেতে পারে।

অনেকেই খাবার খাওয়ার সময় বা পরে কোমড়ের বেল্ট কিংবা কাপড় ঢিলা করে দেয়। এটা উচিত নয়।
Put Belt on While Launch

৫. ভাত খাওয়ার পরে ব্যয়াম করা ঠিক নয়।

৬. পেট ভরে ভাত খাওয়ার পরে ঘুমিয়ে পড়া খুবই খারাপ অভ্যাস। এতে শরীরে মেদ জমে যায়।

৭. ভাত খাওয়ার পরেই অনেকে চা খান । চায়ে থাকে প্রচুর পরিমাণ টেনিক এসিড যা খাদ্যের প্রোটিনকে ১০০ গুণ বাড়িয়ে তোলে। এতে আগের খাবার হজম হতে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি সময় লাগে।

Tea After Launch
Tea After Launch

৮. অনেকেই বলে থাকেন যে , ভাত খাওয়ার পর একটু হাঁটা মানে আয়ু বেড়ে যাওয়া| এটি একদম উচিত নয়, কারণ আমাদের শরীরের ডাইজেস্টিভ সিস্টেম খাবার থেকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি শোষনে অক্ষম হয়ে পড়ে।

ভাতের কিছু স্বাস্থ্যগুণ-

১. সাধারণ ভাতে প্রচুর পরিমাণ কার্বোহাইড্রেট থাকে। সেই কার্বোহাইড্রেট আমাদের শরীরে শক্তি জোগায়।

২. ভাতে আছে অ্যামাইনো অ্যাসিড। যা পেশিবৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

৩.শরীরে গ্যাসের সমস্যার মোকাবিলাতেও ভাতের জুড়ি মেলা ভার।

৪. রক্তচাপ ও কিডনির সমস্যায় যারা ভুগছেন, তাদের জন্যও উপকারি সাদা ভাত।

৫. ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে এটি কাজ করে।

৬. ভাতে আছে শর্করা, যা পেট পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে।

৭. ভাত, হার্টের পাশাপাশি স্নায়ুকেও ভালো রাখে। ৮. কম খরচে অতিথির আপ্যায়ন মানেই ভাত|

তাই নিয়ম মেনে ভাত খেয়ে যান| পেটে ও মনের শান্তি এনে দেবে এক থালা ভাত|

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *