Coffee During Cold and Its Side Effect

Coffee During Cold: শীতে গরম কফি, উপকার ও উপকার

লাইফস্টাইল

কফির উপাদান ক্যাফেইনের জন্যে কফি (Coffee During Cold) মানুষের উপর উত্তেজক প্রভাব ফেলে ও উদ্দীপক হিসেবে কাজ করে।

বাতাসে ঠান্ডা আমেজ এসেছে। শীতের সঙ্গী কফি। এক চুমুকেই পরম তৃপ্তি। কফি বিশ্বব্যাপী খুবই জনপ্রিয় পানীয়। প্রায় ৭০টি দেশে এই ফলের গাছ জন্মে। কফিতে ক্যাফেইন নামক এক প্রকার উত্তেজক পদার্থ রয়েছে। ৮ আউন্স কফিতে প্রায় ১৩৫ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন থাকে। কফির উপাদান ক্যাফেইনের জন্যে কফি (Coffee During Cold) মানুষের উপর উত্তেজক প্রভাব ফেলে ও উদ্দীপক হিসেবে কাজ করে। এখন, চায়ের পর কফি বিশ্বের অত্যধিক জনপ্রিয় পানীয়। কিন্তু এর উপকার ও উপকার দুই-ই আছে।

কফির উপকারিতা:—

খেলাধুলায় উন্নতি: ক্যাফেইন যুক্ত কফি খেলে খেলাধুলায় বল বাড়ে। হৃদপিণ্ডের গতি বাড়ায়, তারপরও কফি শরীরে উদ্যম ও উৎসাহ আনে। তাই যে কোনো খেলার আগে কফি পান শরীরে আনে আলাদা শক্তি।

মানসিক শক্তি বৃদ্ধি: একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে মানসিক চাপের সময়, ২০০ মি।গ্রাম ক্যাফেইন শরীরে গেলে মনযোগ বাড়ে। অন্যদিকে প্রমাণ মিলেছে আলঝেইমার রোগের ক্ষেত্রে বিশেষ উপকারী পদার্থ এই ক্যাফেইন।

রোগের ঝুঁকি কমায়: ক্যাফেইন যুক্ত বা বিহীন, যে কোনো ধরনের কফি টাইপ টু ডায়াবেটিস রোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। আর দেখা গেছে কিছু ক্যান্সারের ঝুঁকিও কমায় এই কফি।

চুলপড়া কমাতে সাহায্য করে: চুলপড়া কমাতে সাহায্য করে কফি। সপ্তাহে একদিন কফি বিন অথবা কফি ডাস্ট জল দিয়ে ফুটিয়ে চুলে লাগালে চুলপড়া কমে যাবে এবং চুলের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে চুল সিল্কি করে তোলে।

লিভারকে সুরক্ষিত রাখে: কফিতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস শরীরের নানা ক্ষতিকর টক্সিন বের করে দিয়ে লিভারকে সুরক্ষিত রাখে। এছাড়া লিভারের নানা রোগের হাত থেকে রক্ষা করে কফি।

কফির অপকারিতা:—
হৃদয়ের জন্য খারাপ: বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে ক্যাফেইন হৃদপিণ্ডের রক্তসরবরাহকরী ধমনীতে রক্ত চলাচল ধীর করে। ব্যায়ামের সময় বুকধড়ফড়ানি, অনিয়মিত হৃদস্পন্দন বা উচ্চ রক্তচাপের জন্যেও শরীরের অতিরিক্ত ক্যাফেইন দায়ী।

ঘুমের ব্যঘাত: চা বা কফি খেলে ঘুম কম হয়। অনেক গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, যারা দিনে তিন কাপের বেশি কফি পান করেন তাদের শান্তির ঘুম থাকে না। আরেক গবেষণায় দেখা গেছে, যারা কফি খান না তাদের থেকে কফি পানকারীদের ৭৯ মিনিট কম ঘুম হয়। তাই ঘুমের সমস্যা থাকলে কফি খাবেন না।।

চিনির বন্ধু: অনেকে চিনি ছাড়া কফি পান করেন। তবে কফির সঙ্গে কেক, বিস্কুট বা সকালের নাস্তার অনেক পদেই থাকে চিনি। দেখা যায়, সারা দিনে হয়তো ১১ টেবিল-চামচ চিনি খাওয়া হয়ে যাচ্ছে। ফলে যারা ওজন কমানোর চেষ্টায় আছেন, তারা ভুল করছেন।

সন্তান ধারণে অক্ষমতা: প্রতিদিন পাঁচ কাপের বেশি কফি খেলে গর্ভধারণের ক্ষমতা কমে যেতে পারে। যদি মা হতে চান, তবে অবশ্যই কফি খাওয়ার পরিমাণ কমাতে হবে। আর গর্ভধারেণের পর কফি বাদ দিন। দৈনিক ২০০ মি.গ্রাম ক্যাফেইন শরীরে গেলে গর্ভের শিশুর ক্ষতি হওয়ার পাশাপাশি জন্মক্রটি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

মেজাজের জন্য খারাপ: ক্যাফেইন শরীরের অ্যাড্রেনালিন নামক একধরনের হরমোনের মাত্রা অনেকটা বাড়ায়। ফলে শরীরের টানটান উত্তেজনা বা ঘাবড়িয়ে যাওয়ার অনুভুতির মাত্রা বাড়িয়ে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *